ঢাকা, সোমবার   ২৬ জুলাই ২০২১, || শ্রাবণ ১১ ১৪২৮

বাগাতিপাড়ায় ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার ৫

একুশে টেলিভিশননাটোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৫:৪৬, ৩ মে ২০২১

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় তিন নৈশ প্রহরিকে বেধে ১১ দোকানে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত পাঁচ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত একটি ট্রাক জব্দ করা হয়।

সোমবার (৩ মে) দুপুরে নিজ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। 

গ্রেফতারকৃতরা হলো বগুড়া জেলার দুপচাচিয়া উপজেলার ছোট বেড়া এলাকার আব্দুর রহমান (৩৮), নঁওগা সদর উপজেলার শাহজাহান মণ্ডল (৩৮) ও নাসের (৫৫) এবং রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার সেলিম (২৮) ও বাগমারা থানার শাহিন আলম (২৭)। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে নাটোর জেলা পুলিশ।

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, গত ২১ জানুয়ারি রাতে বাগাতিপাড়া উপজেলার তমালতলা বাজারের তিন নৈশ প্রহরী সাজেদুর রহমান, মোঃ উমর আলী ও মোঃ কালামকে বেধে রেখে ১১ দোকানে লুট করা হয়। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী বায়েজিদ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ১০-১৫ জনকে আসামী করে এজাহার দাখিল করে। এ প্রেক্ষিতে পুলিশের ৪টি টিম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা দেশের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। 

এদের মধ্যে ১৩ এপ্রিল নওগাঁ জেলার সদর উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নস্থ শুকুরের মোড় এলাকা থেকে মোঃ আব্দুর রহমান ও শাহজাহান মণ্ডলকে আটক করা হয়। এই আটককৃতদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাজশাহী কারাগারে আটক মোঃ সেলিমকে ১৭ এপ্রিল পুনঃআটক এবং ২ মে রাতে মোঃ নাসেরকে রাজশাহী মেট্রোপলিটনের বোয়ালিয়া থানার পঞ্চবটী এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। 

এছাড়া একই দিন রাতে মোঃ শাহীন আলমকে নওগাঁর মিঠাপুকুর বাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। আসামীদের দেয়া তথ্যমতে নওগাঁর রানীনগর উপজেলার হাতি মরার বিল থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ১টি ৩ টনি ট্রাক (যার রেজিঃ নং চট্র মেট্রো-ড ১১-২৯২২) উদ্ধার করা হয়। 

পুলিশ সুপার আরও বলেন, গ্রেফতারকৃতরা লুন্ঠিত চার লক্ষ চল্লিশ হাজার সাতশ’ টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেয়। তারা ডাকাতির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। 

এ ঘটনার সাথে জড়িত অন্য ডাকাতদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার। 
এএইচ/ এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি