ঢাকা, শনিবার   ০১ অক্টোবর ২০২২

কুড়িগ্রামে প্রতিবন্ধী যুবককে পিটিয়ে হত্যা, ঘাতক আটক

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ০৭:৩২, ১৫ জুলাই ২০২১

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার কাচির চর এলাকায় জাহিদ হাসান (১৮) নামে এক প্রতিবন্ধী যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ভোগডাঙ্গা ইউপি সদস্য মা ছলিমা বেগমকে বাঁচাতে গিয়ে বুধবার এ হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে প্রতিবন্ধী যুবক। পরে অভিযান চালিয়ে ঘাতক কাজল খান কাশেমকে আটক করে পুলিশ। 

এসব তথ্য নিশ্চিত করেন কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার। তিনি  জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লাশের ময়না তদন্ত করে স্বজনদের হাতে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

এদিকে, জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ পুলক সরকার জানান, প্রতিবন্ধী যুবকের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম হয়। এছাড়া তার মাথায় টিউমারে আঘাত লাগায় অতিরিক্ত রক্ষক্ষলণে তার মৃত্যু হয়।

ভোগডাঙ্গা ইউপির সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ছলিমা বেগম জানান, বুধবার সকালে তার বাড়িতে ভিজিএফ’র চাল পেতে বিভিন্ন এলাকার মহিলারা আসে। অভিযুক্ত ঘাতক কাজল খান কাশেমের বাড়িও ওই মহিলা সদস্যের বাড়ির সামনেই। ভিজিএফ’র চাল দেয়ার সময় লোকজনের কোলাহলে ঘাতক কাশেমের ঘুম ভেঙ্গে যায়। এরপর সে বাড়ি থেকে বের হয়ে আমাকে রাস্তার উপর পেটাতে থাকে। আমি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আমার প্রতিবন্ধী ছেলে জাহিদ হাসান আমাকে জড়িয়ে ধরে বাঁচানোর চেষ্টা করে। 

এসময় জাহিদকে এলোপাথারী মারপিঠ করে কাশেম। ঘটনাস্থলে জাহিদ লুটিয়ে পড়ে। কান দিয়ে রক্ত বের হলে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। আমার মাথা ফেঁটে রক্ত ঝড়তে থাকে। পরে প্রতিবেশীরা আমাদের দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে বলে জানান ছলিমা বেগম।

তিনি আরও জানান, কাশেমের সাথে বাড়ির রাস্তা নিয়ে আগে থেকেই তাদের বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জের ধরেই সে আমার প্রতিবন্ধী ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা করে। আমি এর বিচার চাই।

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি