ঢাকা, বুধবার   ১৮ মে ২০২২, || জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৯

নকল ফেনসিডিল কারখানার সন্ধান

বেনাপোল প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৫:৪৭, ২৩ ডিসেম্বর ২০২১

ঘুমের ট্যাবলেট, নেশা জাতীয় দ্রব্য ও চিনি গুলিয়ে তৈরি করা হয় নকল ফেনসিডিল। এরপর সেগুলো ভরা হয় পুরাতন ফেনসিডিলের বোতলে। মুখের ছিপি মেশিন দিয়ে আটকিয়ে বিক্রি করা হয় এলাকার উঠতি যুবকদের কাছে। এ রকম একটি নকল ফেনসিডিল কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ।

বুধবার রাতে বেনাপোল বাহাদুর রোডের একটি তিনতলা ভবনের নিচ তলায় ওই নকল কারখানায় অভিযান চালায় পোর্ট থানা পুলিশ।

এ সময় নকল ফেনসিডিল, বিপুল সংখ্যক খালি বোতল ও ফেনসিডিল তৈরির নানা সামগ্রী উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় ফেনসিডিল কারিগর মনিরুজ্জামান কালু (২৫)কে। সে বেনাপোলের সাদিপুর গ্রামের আব্দুর রহিম সরদারের ছেলে।

পোর্ট থানা সূত্র জানিয়েছে, বাহাদুরপুর রোডের একটি বাড়িতে নকল ফেনসিডিল তৈরি করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পোর্ট থানা পুলিশের একটি দল গোলাম মোর্শেদের বাড়ির নিচ তলায় অভিযান চালিয়ে কারখানার সন্ধান পায়। ওই কারখানা থেকে ৯৭ বোতল ফেনসিডিল, ৩শ’ ২৮ পিস খালি ফেনসিডিলের বোতল, ৫ লিটার তরল পদার্থ, একটি কসটেপ ও এক কেজি চিনিসহ নকল ফেনসিডিল তৈরির নানা সামগ্রী জব্দ করে পুলিশ।

এ সময় কারখানায় ফেনসিডিল তৈরিরত অবস্থায় পুলিশ মনিরুজ্জামান ওরফে কালুকে আটক করে। কালু পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে যে, কড়াকড়ির কারণে ভারত থেকে ফেনসিডিল আনতে না পারায় এ পদ্ধতি তৈরি করছে সে। এতে অল্প খরচে লাভ বেশি। এই ফেনসিডিল উঠতি বয়সের যুবেকরা বেশি কিনে বলে জানায় সে।

এ বিষয়ে বেনাপোলে পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ মামুন খান জানান, আটক মনিরুজ্জামান কালুর বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এ অবৈধ কারবারের সাথে আর কারা কারা জড়িত আছে সে বিষয়েও তদন্ত করা হচ্ছে, জানান তিনি।

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি