ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩

ঋণ নেননি, তবুও শতাধিক কৃষকের নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা (ভিডিও)

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৩:৩১, ২৮ আগস্ট ২০২২

কৃষি ব্যাংক থেকে নেননি ঋণ, তারপরও টাকা পরিশোধের জন্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ও মাল ক্রোকের নোটিশ পেয়েছেন রাজবাড়ীর খানগঞ্জ ইউনিয়নের শতাধিক কৃষক। এমনকি মৃত ব্যক্তির নামেও কৃষি ঋণ পরিশোধের নোটিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, ভূয়া নামে একটি চক্র কৃষি ঋণের টাকা আত্মসাৎ করে তা ধামাচাপা দিতে এই অপকর্ম করছে।

ব্যাংক থেকে কৃষি ঋণ নেননি গোবিন্দপুর, হরিহরপুর, বাসুদেবপুর, কান্তনগর গ্রামের কৃষকরা। তারপরও এসেছে নোটিশ। কৃষকরা বলছেন, এটি জালিয়াতি চক্রের কারসাজি।

কৃষকরা বলেন, “আমরা কৃষি ব্যাংক থেকে লোন নেইনি। আমাদের নামে ১ লাখ ১৫ হাজার টাকার লাল নোটিশ ও গ্রেফতারি পরোয়ানা এসেছে। এই লাল নোটিশ কেন আসলো তা আমরা বুঝতে পারছিনা।”

ছবি একজনের, এনআইডি অন্যজনের। এমন ধরনের প্রতারণা করে ব্যাংক থেকে তোলা হয়েছে এ বিপুল অংকের টাকা।

কৃষকরা আর জানান, “জমির পরচা নিয়ে কৃষি ব্যাংক থেকে লোন নিয়েছে, এর মধ্যে আমাদের ছবি নাই, অন্যের ছবি। দালালচক্র ও কৃষি ব্যাংকের লোক মিলে এই কাজটি করেছে।”   

একুশের ক্যামেরা দেখে ঋণ না নিলেও টাকা পেয়েছেন বলে কৃষককে স্বীকার করতে বলেন কৃষি ব্যাংকের এই কর্মকতা। 

টেলিফোনে কৃষকদের রাজবাড়ী কৃষি ব্যাংকের আইও মো. রেজাউল হক বলেন, “ইটিভি সাংবাদিক আপনাদের বাড়ি যেতে পারে। বলে দিবেন আমরা লোন নিয়েছি এবং লোনের কিছু টাকা দিয়েছি। কোনো সমস্যা নাই- একথা বলে দিবেন।”

কর্তৃপক্ষ বলছেন, বিষয়টির তদন্ত চলছে। 

রাজবাড়ী কৃষি ব্যাংকের এজিএম মোঃ মোতাহার হোসেন বলেন, “এই ঘটনাগুলো বহু আগের ঘটনা। নতুন করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ইতিমধ্যে তারা বিভাগে তদন্তপত্র দাখিল করেছেন।”

ব্যাংকের তথ্য মতে, ২০২১-২২ অর্থবছরে ৩ হাজার ৩৭ জনকে মোট ৩৩ কোটি ২৩ লাখ টাকা কৃষি ঋণ দেওয়া হয়েছে। আর খানগঞ্জ ইউনিয়নে ২২৭ কৃষককে দেওয়া হয়েছে ২ কোটি ৬৭ লাখ টাকা। 

এএইচ


Ekushey Television Ltd.

© ২০২৩ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি