ঢাকা, রবিবার   ১৪ জুলাই ২০২৪

জাল দলিলে কবরস্থান দখলের চেষ্টা সাবেক এএসআই’র (ভিডিও)

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৩:২১, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

হবিগঞ্জে পুলিশের সাবেক এক এএসআইয়ের বিরুদ্ধে কবরস্থান দখলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। গ্রামবাসীর অভিযোগ, কবরস্থানটি বুল ডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দখলে নেয়ার চেষ্টা করেছেন সাবেক ওই পুলিশ কর্মকর্তা। এ ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলাও হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, গ্রামবাসীর অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে।

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত ঘেঁষা হবিগঞ্জের মাধবপুরের কমলপুর গ্রাম। সম্প্রতি গ্রামের একটি মাত্র কবরস্থান জাল দলিল করিয়ে নিজের দাবি করছে পুলিশের সাবেক এএসআই আবুল হোসেন। এরইমধ্যে কবরস্থানের জায়গা দখলে নিতে বুলডোজার দিয়ে বেশ কিছু কবর গুড়িয়ে দিয়েছেন। 

প্রতিবাদ করায় তাদের বিরুদ্ধে গাছ চুরির মামলা দিয়েছে সাবেক ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

গ্রামবাসীরা জানান, “নতুন নতুন কবর থেকে কঙ্কালগুলো তুলে ফেলেছে। অবসরপ্রাপ্ত এই পুলিশ সদস্য কঙ্কালগুলো উধাও করে ফেলেছে। জাল দলিলে এই জমি কিনে কবরস্থান ভেঙ্গে দিয়েছে সে।”

অভিযুক্ত ব্যক্তি ক্যামেরায় কথা বলনে রাজি হননি। তবে টেলিফোনে কংকাল তোলার কথা অস্বীকার করে কবরস্থানকে পৈতৃক সম্পত্তি বলে দাবি করেছেন।

অবসরপ্রাপ্ত এএসআই মো. আবুল হোসেন বলেন, “বাংলাদেশে কঙ্কাল চুরি করা হয়েছে, এমন কোন রেকর্ড আছে কি? কেউ কোন দিন জানেওনি। এটি পৈতৃক সম্পতি। যদি জাল দলিল হয়, যারা বিক্রি করেছে তারাই বর্বর।”

কবরস্থান রক্ষায় গ্রামবাসীর সাথে থেকে পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান।

চৌমুহনী ইউপি চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুর রহমান সোহাগ বলেন, “এলাকাবাসীর সাথে আমি একমত। এটা কবরস্থান হিসাবেই থাকুক।”

কবরস্থান ফেরত পেতে আদালতে মামলা করেছেন গ্রামবাসী। পুলিশ বলছে, গ্রামবাসীর অভিযোগের সত্যতা মিলেছে। 

মাধবপুর সার্কেল সহকারি পুলিশ সুপার মহসীন আল মুরাদ বলেন, “একই ঘটনায় দুটি মামলা হতে পারে না। যে কারণে অপেক্ষা করছি, কোর্টে যদি কোনো মামলা রুজু না হয় তাহলে মামলা নিয়মিত মামলা রুজু করবো।”

গ্রামের একমাত্র কবরস্থানটি রক্ষায় প্রশাসনের সহায়তা চান গ্রামবাসী। 

এএইচ


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted







© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি