ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০২৪

নোয়াখালীতে জামায়াত-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা, গ্রেপ্তার ২৩

নোয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৯:৪৩, ২৫ ডিসেম্বর ২০২২

নোয়াখালীর পৌর এলাকার মাইজদী বাজার ও বড় মসজিদ এলাকায় জামায়াতের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ এবং মিছিল থেকে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে জামায়াতের নায়েবে আমির সহ প্রায় সাড়ে ৫শ নেতাকর্মীকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা মামলায় এ পর্যন্ত ২৩ জন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শনিবার ঘটনার পর থেকে রোববার ভোর পর্যন্ত সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। রোববার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের বিচারিক আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধিনে নির্বাচন, কর্তৃত্ত্ববাধী সরকারের পদত্যাগ, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, মির্জা আব্বাসসহ গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তিসহ ১০ দফা দাবিতে ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির দিন শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মাইজদী পৌর বাজার এলাকায় একটি মিছিল বের করে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। তাদের মিছিলটি প্রধান সড়কে ওঠলে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। পুলিশ অভিযোগ করেন এসময় মিছিলকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ককটেলের বিষ্ফোরণ ঘটায়। এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৪১ রাউন্ড শর্টগান, ২রাউন্ড গ্যাস, ৬ রাউন্ড সাউন্ড গুলি ও লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে জেলা অতিরিক্ পুলিশ সুপার ও ৬পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম জানান, জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা মিছিল থেকে পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ককটেলের বিষ্ফোরণ করে। পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় সুধারাম থানার এসআই মোজাফফর হোসেন বাদি হয়ে ৩৫ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরও ৪০০-৫০০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় এই পর্যন্ত ২৩ জনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
কেআই//
 


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি