ঢাকা, বুধবার   ২৭ অক্টোবর ২০২১, || কার্তিক ১১ ১৪২৮

স্কুল শিক্ষিকাকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা, প্রাক্তন স্বামী আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১০:৩২, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার বয়ারচর টাঙ্কির বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা ফাতেমা বেগম (৩২) কে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে হামলার শিকার হন অপর শিক্ষিকা পলাশি রানি।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে স্থানীয় মাইনুদ্দিন বাজার সড়কে এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় ওই শিক্ষিকার প্রাক্তন স্বামী ওমর ফারুক আটক করেছে পুলিশ। 

গুরুতর অবস্থায় ঐ শিক্ষিকাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে প্রকাশ্যে হত্যার চেষ্টাকারী একাধিক মামলার আসামি ফারুককে স্থানীয়রা আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। 

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষক ও স্থানীয়রা জানান, স্কুল ছুটির পর ইজিবাইকে করে বাড়ি ফেরার পথে স্থানীয় মাইনুদ্দিন বাজারে এলে পূর্ব থেকে ওঁতপেতে থাকা প্রাক্তন স্বামী ফারুক রামদা দিয়ে ইজিবাইক থেমে নামিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে।

এ সময় ঐ শিক্ষিকাকে বাঁচাতে গিয়ে অপর শিক্ষিকা পলাশ রানিও আহত হয়। তাদের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে মুমূর্ষ অবস্থায় শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক। 

এ ব্যাপারে হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের জানান, এ ঘটনায় ঐ শিক্ষিকার প্রাক্তন স্বামীকে আটক করা হয়েছে। স্বামীর বিভিন্ন নির্যাতনের কারণে গত দেড় বছর আগে তাকে ডিভোর্স দেয় স্ত্রী ফাতেমা। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে তার ওপর এ হামলা চালায়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি। 

আই/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি