ঢাকা, রবিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২১, || কার্তিক ৮ ১৪২৮

মৌলভীবাজারে দুই গৃহবধুকে গণধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ৭

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ০৯:৩৬, ২২ ডিসেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ০৯:৪০, ২২ ডিসেম্বর ২০১৯

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সিএনজি অটোরিক্সার যাত্রী দুই গৃহবধু গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সম্পৃক্ততার অভিযোগে ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- ইউসুফ মিয়া (৩৫), সেলিম মিয়া (৩৬), রবিলাল উড়াং (২০), বিকাশ মুন্ডা (২৩), আবু সুফিয়ান (৪৫), রুবেল মিয়া (২৭) ও আলমগীর হোসেন (২৫)। এদের মধ্যে রবিলাল উড়াং, বিকাশ মুন্ডা ও আবু সুফিয়ান দেওড়াছড়া চা বাগানের আর বাকি ৪ জন মৌলভীবাজার সদরের।

কমলগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান জানান, গত শুক্রবার ২৫ ও ২০ বছর বয়সী দুই গৃহবধু একে অপরের পরিচিত। একজনের স্বামী বাহার মিয়া একটি মারামারির মামলায় জেলা কারাগারে আটক রয়েছেন। তার সঙ্গে দেখা শেষে শুক্রবার সন্ধ্যায় মৌলভীবাজার শহরের রোড থেকে তারা কমলগঞ্জের মুন্সীবাজারস্থ বাসায় যাওয়ার জন্য সিএনজি অটোরিক্সা ভাড়া করেন। সিএনজি চালক প্রধান সড়ক দিয়ে না গিয়ে ফাঁড়ি পথে নিয়ে গেলে তারা প্রতিবাদ জানান। রাস্তা খারাপের অজুহাত দেখায় চালক। অটোরিক্সা চালক ইউসুফ তার সহযোগীদের মুঠোফোনে খবর দিয়ে রাস্তায় ২ জনকে গাড়িতে উঠায়। এসময় আরো দুটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সা নিয়ে ৪ জন এসে যুক্ত হয়। পরে দুই গৃহবধুকে চা বাগানের নির্জন এলাকায় ৭ জন মিলে গণধর্ষণ করে। গণধর্ষণ শেষে ধর্ষকরা গাড়িতে তোলে পার্শ্ববর্তী বাবু বাজার এলাকায় রাত ৯টায় নামিয়ে দেয়। এ সময় তারা চিৎকার দিলে এলাকাবাসী এগিয়ে আসে। ভয়ে একটি সিএনজি চালক সিএনজি ফেলে পালিয়ে যায়।

তিনি জানান, এলাকাবাসী সিএনজি জব্দ করে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে সিএনজি জব্দ করে এবং সিএনজির চালককে খুঁজে তাকে আটক করে। পরে তার স্বীকারোক্তিতে আরো ৬ জনকে আটক করা হয়।

ওসি বলেন, নির্যাতনের শিকার এক নারীর স্বামী বাদী হয়ে শনিবার বিকালে কমলগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, আটককৃত ৭ জন ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। তাদেরকে এ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার বিকালেই মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আদালতে ধর্ষকদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করা হবে। এ মামলা তদন্ত করে যদি দেখা যায় আরও কোনও ব্যক্তি জড়িত তাহলে তাকেও গ্রেফতার করা হবে।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার রত্নজিৎ বিশ্বাস জানান, দুজনই গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

একে//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি