ঢাকা, সোমবার   ০৮ আগস্ট ২০২২

দশ বছর আগেই মি-টু সম্পর্কে বলেছিলাম: তনুশ্রী দত্ত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২০:০৬, ২৪ অক্টোবর ২০১৮

মিডিয়ায় পাড়ায় যৌন হয়রানি নিয়ে দশ বছর আগেই নানা পটেকর বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন তনুশ্রী দত্ত। ইতোমধ্যে তিনি #মি-টু আন্দোলনের প্রবক্তা হিসেবে সকলের কাছে নতুন ভাবে পরিচিত হয়ে উঠেছেন। যখন তিনি এসব নিয়ে সরাসরি মুখ খুলেছেন তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এতটা প্রভাব ছিল না। তাই নানা’র বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে লোকজন তেমন জানতে পারেনি বলে জানিয়েছেন তনুশ্রী দত্ত।

সম্প্রতি একটি টেলিভিশন চ্যানেলে নানা পটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন তনুশ্রী। অভিযোগ তুলেছেন পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর বিরুদ্ধেও।

তনুশ্রী জানিয়েছেন, দশ বছর আগেও নানার বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন তিনি। মিডিয়ায় তা নিয়ে হইচই হয়েছিল। তবে তা কোনও ভাবেই এতটা প্রচারের আলোয় আসেনি। বরং তা কেবলমাত্র ‘চমক’ জাগানোর প্রচেষ্টা হিসেবে তুলে ধরেছিল সংবাদ মাধ্যমে। তবে এখন ছবিটা পাল্টে গেছে। তনুশ্রীর মতে, এর পিছনে রয়েছে শক্তিশালী সোশ্যাল মিডিয়ার প্রভাব রয়েছে।

তনুশ্রী বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়া এমন অনেক মানুষকে (যৌন হেনস্থার বিরুদ্ধে) কথা বলার সুযোগ করে দিয়েছে।  যাঁরা কখনও মুখ খোলার সাহস পাননি।’

নানা পটেকর ছাড়াও পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর বিরুদ্ধেও যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন তনুশ্রী। তাঁর দাবি, ২০০৯ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির শুটিং ফ্লোরে নানা পাটেকর তাঁকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন। সে ছবিতে মুখ্য অভিনেতা হিসেবে নানা’র সঙ্গে একটি আইটেম গানের সময় ওই ঘটনা ঘটেছিল। তনুশ্রীর অভিযোগ, সেই গানের দৃশ্যের শুটিংয়ের সময় তাঁর সঙ্গে আপত্তিকর ব্যবহার করেন নানা। এমনকি, ঘনিষ্ঠ হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন নানা।

তনুশ্রীর আরও দাবি করেন, সে প্রস্তাবে তিনি রাজি না হওয়ায় একটি রাজনৈতিক দলের কিছু কর্মীকে সেটে ডেকে আনেন নানা। তাঁরা তনুশ্রীর গাড়িতে ভাঙচুর চালায়। নানা’র সঙ্গে মিলে কোরিওগ্রাফার গণেশ আচারিয়া এবং রাকেশ সরং-সহ সেটের অধিকাংশই তাঁর উপর চাপ সৃষ্টি করেন। সে কারণে ওই আইটেম সং  থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন তিনি।

নানা ছাড়াও পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর বিরুদ্ধেও মুখ খুলেছেন তনুশ্রী। ২০০৫-এ রিলিজ হওয়া ফিল্ম ‘চকোলেট’-এর সেটে নাকি তনুশ্রীর সঙ্গে অভব্যতা করেছিলেন পরিচালক বিবেক। বিবেক নাকি তনুশ্রীকে পোশাক খুলে নাচের নির্দেশ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ তাঁর। এ সমস্ত দাবির পাল্টা হিসেবে ইতিমধ্যেই,তনুশ্রীর বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শুরু করেছেন নানা এবং বিবেক।

তবে নানা বা বিবেক, কারও বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ থেকে সরে আসছেন না তনুশ্রী। দশ বছর আগের সেই ঘটনা এখনও কেন ফের তুলছেন তিনি?

এ প্রসঙ্গে তনুশ্রী বলেন, ‘আমাদের এই প্রশ্নটা করা উচিত নয়, কেন আগে বলেনি, কেন এখন মুখ খুলছে? মানুষ তো আর রোবট নয়। ফলে এ ধরনের ইস্যুগুলি নিয়ে আমাদের আরও সংবেদনশীল হতে হবে।’ (সূত্রঃ আনন্দবাজার)

কেআই/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি