ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ মে ২০২৪

রক্তচাপ ঊর্ধ্বমুখী? নিয়ন্ত্রণে রোজ টক দই খান

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৫৭, ১০ ডিসেম্বর ২০২১

উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা রোজ বেড়েই চলেছে। আমাদের যেইরকম জীবনযাত্রা তাতে রক্তচাপ বাড়াটাই স্বাভাবিক। বহু আক্রান্তই অনেক চেষ্টা করেও এই রোগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না। তবে আর চিন্তা নেই বর্তমান এক গবেষণা দেখাচ্ছে মুক্তির পথ। নতুন গবেষণা বলছে টক দই খেলেই নাকি কমবে ব্লাড প্রেশার।

সম্প্রতি আমেরিকার ইউনিভর্সিটি অব মেইন এর এক বিশেষ গবেষণায় বলা হয়েছে, টক দই খেলে কমতে পারে ব্লাডপ্রেশার। এই গবেষণায় বিশেষজ্ঞরা টক দইয়ের সঙ্গে ব্লাডপ্রেশার এবং হার্টের সম্পর্ক খোঁজার চেষ্টা করেছেন। 

গবেষকরা দেখেন, রোজ টক দই খেলে ব্লাডপ্রেশার অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। এই গবেষণার ফলাফল ইন্টারন্যাশনাল ডায়রি জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। 

বিশেষজ্ঞদের মতে, গোটা বিশ্বের বহু মানুষ হাই ব্লাডপ্রেশারে আক্রান্ত। এই হাই ব্লাডপ্রেশার স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাকের মতো রোগের আশঙ্কা বাড়ায়। আর এই সব রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রতি বছর অসংখ্য মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। তাহলে মূল সমস্যা প্রেশারকেই নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।

এই গবেষণার অন্যতম গবেষক আলেকজান্ডার ওয়েড বলেন, ‘‘এই গবেষণা আমাদের সামনে চমকপদ তথ্য এনে দিয়েছে। আমরা জানতে পেরেছি টক দই খেলে ব্লাডপ্রেশার কমে। এমনকী তার সঙ্গে কমতে পারে কার্ডিওভাস্কুলার বিভিন্ন অসুখে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও।’’

উনি আরও বলেন, ‘‘ডেইরি ফুডের মধ্যে টক দই পারে বিপি নিয়ন্ত্রণে রাখতে। এরমধ্যে থাকা ক্যালশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম সহ বেশকিছু উপাদান বিপি কন্ট্রোল করতে পারে। 

এছাড়া টক দইয়ের মধ্যে থাকা প্রোবায়োটিক শরীরের সার্বিক স্বাস্থ্য ভালো রাখে। এক্ষেত্রে প্রোবায়োটিক হল ভালো ব্যাকটেরিয়া যা অন্ত্রে উপস্থিত খারাপ ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে। তাই সকলের উচিত ভালো মতো টক দই খাওয়া।’’

এই গবেষণাটি ৯১৫ জন মানুষের উপর করা হয়। গবেষণায় দেখা যায়, যে মানুষগুলি রোজ টক দই খেয়েছেন তাদের রক্তচাপের তুলনায় যারা টক দই খান না তাদের থেকে অনেকটাই কম। তাই আর চিন্তা নেই, আজই দই খাওয়া শুরু করুন। 

তবে পুষ্টিবিদদের পরামর্শ, টক দইয়ের পরিবর্তে মিষ্টি দই কোনওভাবেই খাওয়া যাবেনা। আর তা বাজার থেকে না কিনে বাড়িতে বানাতে পারলেই ভালো হয়। 

সূত্র: এই সময়
এমএম/এসবি


Ekushey Television Ltd.





© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি