ঢাকা, রবিবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রীয় সম্মাননায় প্রথম বাংলাদেশী

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:০৩ ১ ডিসেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১৬:০৭ ১ ডিসেম্বর ২০১৯

‘মেডেল অব দ্য অর্ডার অব অস্ট্রেলিয়া’ অস্ট্রেলিয়ার একটি রাষ্ট্রীয় সম্মাননার নাম। এ সম্মাননা পেয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাংলাদেশের নাগরিক কামরুল হোসাইন চৌধুরী। দেশটির ভিক্টোরিয়া রাজ্যের রাজধানী মেলবোর্নের বাংলাদেশি কমিউনিটির সেবায় বিশেষ অবদান রাখায় গত জুনে রানি এলিজাবেথের জন্মদিন উদ্যাপনের দিনে তাকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়। অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দিবসে প্রতিবছর দেশটির নাগরিকদের সম্মাননা জানাতে এ মেডেল বা সম্মাননা দেওয়া হয়।

অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সুশীল নাগরিকদের ভালো কাজের পুরস্কার হিসেবে প্রতিবছর অস্ট্রেলিয়া ডে’তে এই সম্মাননার তালিকা প্রকাশ করা হয়। এই সম্মাননা রানির জন্মদিনের দিন প্রদান করার প্রচলন দেশটিতে রয়েছে ১৯৫৭ সাল থেকে।

কামরুল চৌধুরী বলেন, ‘দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকে দেশের মানুষের জন্য নিজের যৎ সামান্য সাধ্য থেকে কিছু করার চেষ্টা করে যাচ্ছি অনেক বছর ধরেই। কখনোই এর প্রতিদানই আশা করিনি। তবে এখন অস্ট্রেলিয়া ডে সম্মাননা পেতে চলেছি ভেবে খুশি লাগছে কেবল এ জন্যই যে, এর সঙ্গে আমার দেশের নাম জড়িয়ে আছে। দেশের নামে ভালো কিছু পাওয়াটাই একটা বড় পাওয়া।’

কামরুল হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘কী করেছি, কী পেয়েছি সে হিসাব এখন আর করি না। তবে বাংলাদেশে দক্ষ প্রিন্টিং পেশাদার তৈরি করতে কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু করার একটা স্বপ্ন আছে আমার। যদি সরকার সহযোগিতা করে, তাহলে এখনই শুরু করতে চাই।’

উল্লেখ্য, কামরুল হোসেন চৌধুরীর ১৯৫২ সালে পাবনায় জন্মগ্রহণ করেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক অর্জন করে অস্ট্রেলিয়ায় স্নাতকোত্তর করেছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে ৭ নম্বর সেক্টরের হয়ে যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। স্বাধীনতার পর দেশকে পূর্ণগঠনের কাজে নিজেকে নিয়োজিতও রেখেছিলেন তিনি। ১৯৭৫ সাল পরবর্তী বাংলাদেশের রাজনৈতিক অস্থিরতার কারনে ১৯৭৭ সালে পাড়ি জমান অস্ট্রেলিয়ায়।

ঢাকায় এবং পাবনায় পারিবারিক ছাপাখানার ব্যবসা দেখে হাতেকলমে শিক্ষা নেওয়া কামরুল অস্ট্রেলিয়ায় যন্ত্রপাতি কেনাবেচার ব্যবসায় শুরু করেন। ১৯৭৮ সালে গড়ে তোলেন নিজের প্রতিষ্ঠান পিএনএস গ্রুপ। এখন ইউরোপ, আমেরিকা, চীনসহ বাংলাদেশ ও ভারতেও প্রিন্টিং মেশিন রপ্তানি করা হয়। বাংলাদেশেও এ প্রতিষ্ঠানের শাখা রয়েছে।

এমএস/

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি