ঢাকা, ২০১৯-০৫-২৫ ৩:১৫:১৯, শনিবার

Ekushey Television Ltd.

আদালতের মাধ্যমে খালেদার মুক্তি মিলতে পারে:তথ্যমন্ত্রী

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:০৬ পিএম, ১৫ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার

বেগম খালেদা জিয়া আদালতের রায়ে শাস্তি প্রাপ্ত হয়ে কারাগারে আছেন। তিনি কোন রাজবন্দী নন। দুর্নীতির দায়ে তিনি কারাগারে আছেন। তাকে মুক্ত করার একমাত্র পথ হচ্ছে আদালত এবং আইন। আইন ও আদালতের মাধ্যমে তার মুক্তি মিলতে পারে, অন্য কোনোভাবে তাকে মুক্ত করার সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) চট্টগ্রাম মহানগরের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়াম মাঠে তৃতীয় বীমা মেলার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপির রিজভীর কথায় প্রমাণিত হয় তারা সাময়িকভাবে তাদের ধ্বংসাত্মক রাজনীতি সেটিতে বিরতি দিলেও, তাদের জ্বালাও-পোড়াও, অগ্নিসন্ত্রাস, সম্পত্তি ধ্বংস, মানুষের গায়ে পেট্টোল ঢেলে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার রাজনীতিতে সাময়িক বিরতি দিলেও তারা সুযোগ পেলে আবার জনগণের ওপর ছোবল দেবে। এটি বলার মাধ্যমে তারা যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনা করছেন সেটি তিনি প্রমাণ করছেন। আমি মনে করি বিষয়টি অত্যন্ত ভাবার। তবে বাংলাদেশের মানুষ তাদের আর সেই সুযোগ দেবে না।

বিএনপি কিংবা ঐক্যফ্রন্ট ডাকসু নির্বাচনকে নিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ছাত্রদল কত ভোট পেয়েছে সেটি বলতেও তারা লজ্জা পাচ্ছে। যারা বামপন্থী সংগঠন করে তাদের প্রতি যথেষ্ট সম্মান-শ্রদ্ধা রেখে বলতে চাই,বাম-ডান সবাই মিলে চেষ্টা করেছিল ছাত্রলীগকে হটিয়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু বাম-ডান সবাই একত্রিত হয়েও ছাত্রলীগের বিজয় ঠেকাতে পারেনি।

তথ্য মন্ত্রী বলেন, উন্নয়নের পাশাপাশি বাংলাদেশকে সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার স্টেট হিসেবে গড়ে তোলার কাজ করছে সরকার। সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী খাতে বাজেটের ১৩ দশমিক ৮১ শতাংশ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এ খাতে বীমা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। গাড়িচালকের বীমা করা দরকার। বীমা কর্তৃপক্ষকে উদ্যোগ নিতে হবে। শিল্পখাত কৃষিখাতকে ছাড়িয়ে গেছে। কারখানার জন্য বীমা হয়, শ্রমিকের জন্য গ্রুপ বীমা হয় না। আহত, অঙ্গহানি ও নিহত হলে দানশীল বা মালিকদের বদান্যতার ওপর নির্ভর করতে হয়। তাই শ্রমিকদের বীমার আওতায় আনতে হবে। বীমা নিয়ে মানুষের সংশয় দূর করতে হবে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, স্বাস্থ্য বীমা কিছু কোম্পানি চালু করেছে। তবে তা সীমিত। ইউরোপে শতভাগ মানুষের স্বাস্থ্য বীমা আছে। আমাদের মানুষ চিকিৎসায় সর্বস্বান্ত হয়। সরকারি হাসপাতালে আইসিইউ বেড সীমিত। বেসরকারি ক্লিনিকে লাখ লাখ টাকা বিল আসে। তাই স্বাস্থ্য বীমা চালু করতে হবে। সম্পদের বীমা না করার প্রবণতার কারণে অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গেলে ক্ষতিপুরণ পায় না।

বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো.আসাদুল ইসলাম, জীবন বীমা কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান সেলিনা আফরোজ ও চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান মেলায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

কেআই/

ফটো গ্যালারি



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি