ঢাকা, শুক্রবার   ২১ জানুয়ারি ২০২২, || মাঘ ৭ ১৪২৮

আমাকে হারাতে অনেক পক্ষ এক হয়ে গেছে: আইভী

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:১৮, ১৪ জানুয়ারি ২০২২ | আপডেট : ১৭:৩০, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

আমাকে পরাজিত করার জন্য অনেক পক্ষ এক হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

তিনি বলেন, পক্ষগুলো ঘরের হতে পারে বাইরেরও হতে পারে। সবাই মিলেমিশে চেষ্টা করছে কীভাবে আমাকে পরাজিত করা যায়। কিন্তু সবাই জানে আমার বিজয় সুনিশ্চিত।   

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে নারায়ণগঞ্জ শহরের দেওভোগ এলাকায় নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আইভী বলেন, সহিংসতা যারা করে তারা ঘর বা বাহির বোঝে না। কীভাবে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে নির্বাচনে ঝামেলা করা যায়, সেই চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে সবাই জানে আমার বিজয় সুনিশ্চিত।

তিনি বলেন, সহিংসতা হলে আমার ক্ষতি হবে। আমার ভোটাররা আসতে পারবে না। আমি যদি বলি একটি পক্ষ তাই চাচ্ছে? আমার নির্বাচন সবচেয়ে বেশি জমজমাট। সেই জায়গাগুলোর মধ্যে হয়তো কেউ সহিংসতা করে ভোট কেন্দ্রে আসা বাধা দিতে পারে।

নারী ও তরুণ ভোটাররা ‘আওয়ামী লীগের পক্ষেই ভোট দেবে’ বলে আশা প্রকাশ করেন নৌকার প্রার্থী। তিনি বলেন, আমি প্রশাসনের কাছে বরাবরই বলে আসছি যে, ভোটের দিন যাতে উৎসবমুখর থাকে। আমার নারী ভোটাররা যেন আসতে পারে। আমার ইয়াং ভোটাররা যেন আসতে পারে। কারণ আমি জানি এই ভোটগুলো আমার। আমি নির্বাচনে জিতবই ইনশাল্লাহ।

সেলিনা হায়াৎ বলেন, সুতরাং আমার বিজয় সুনিশ্চিত জেনে কেউ যদি সহিংতা করে, তাহলে আমার মনে হয় সেটা ঠিক হবে না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অনুরোধ করব, এই ব্যাপারে যেন সজাগ থাকে তারা।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় নেতারা নারায়ণগঞ্জ নির্বাচনে হয়তো একটি দায়িত্ব পালন করছেন। বিভিন্ন কারণে আসছেন। তাদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলছি, আইভী কীভাবে রাজনীতি করে এবং ভোটারদের কাছে যায়, উনারা যদি এটা না জানতেন, তাহলে প্রধানমন্ত্রী এই সময়ে আমাকে নৌকা দিতেন না। উনিও (প্রধানমন্ত্রী) জানেন, উনার আইভী মানুষের দ্বারে যায়। জনগণই আমার শক্তির উৎস। এ ছাড়া বিকল্প নেই। তাই আমি বারবার জনগণের কাছে ফিরে যাই।

আইভী বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ কী করছে সেটা জানার জন্য নেতারা আসতেই পারেন। ঢাকার পাশে নারায়ণগঞ্জ হওয়ায় তারা আসছেন। হয়তো পর্যবেক্ষণ করছেন। আমাকে তারা ফ্রি করে দিয়েছেন। তবে আমার প্রতিপক্ষ প্রার্থীর অনেক লোকজন কিন্তু জেলা ও বিভিন্ন উপজেলা থেকে আসছেন। আমি তাদের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ তুলিনি।

আওয়ামী লীগ মনোনীত এই মেয়র প্রার্থী বলেন, প্রতিটি নির্বাচনই চ্যালেঞ্জিং। এবার আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং। কারণ, এই নির্বাচনই শেষ নির্বাচন কি-না এই মুহূর্তে বলতে পারবো না। আগামী ১৬ জানুয়ারি ভোট। নির্বাচিত হলে জনগণের কাজ করবো। জনগণ যা চাইবে সেই অনুযায়ী কাজ করবো।

এসি
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি