ঢাকা, রবিবার   ১৬ মে ২০২১, || জ্যৈষ্ঠ ১ ১৪২৮

ঋণখেলাপিতে রেকর্ড গড়ছেন চীনের আবাসন ব্যবসায়িরা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:২৩, ১২ এপ্রিল ২০২১

চীনে চলতি বছর আবাসন খাতের ডেভেলপাররা নির্ধারিত সময়ে কর্পোরেট বন্ডের সুদ পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ার ক্ষেত্রে রেকর্ড গড়েছেন। ঋণভারে ন্যুব্জ এই খাতটিতে ঋণের হার কমানোর উদ্যেগ নিয়েছে বেইজিং, যার অংশ হিসেবে এখানে ঋণখেলাপির হারও বাড়ছে।  

জানা গিয়েছে, গত বছর অনশোর ও অফশোর বন্ডমিলিয়ে মোট ১৫ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার পরিমানের সুদ নির্ধারিত সময়ে পরিশোধ করা হয় নি। এখানে ২৭ শতাংশই ছিলো আবাসন খাতের কোম্পানি। চলতি বছরের প্রথম তিনমাসে চীনের কোম্পানিগুলোর খেলাপকৃত সর্বমোট ঋণের পরিমান ১১ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার, যা একবছর আগের রেকর্ড পরিমান ঋণখেলাপির তুলনায় দ্বিগুন। অফশর বন্ডগুলোর ঋণখেলাপির পরিমান তিনগুন বেড়ে ৩ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। 

চীন সরকার আর্থিক ঝুঁকি কমানোর বড় ধরনের উদ্যেগের অংশ হিসেবে ঋণনির্ভরশীল আবাসন খাতের সম্প্রসারণ হ্রাসের উদ্যেগ নিয়েছে। এরআগে কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে তাদের এ উদ্যেগটি স্থগিত হয়ে ছিল। গত মাসে চীনের শীর্ষ ব্যাংকিং রেগুলেটর আবাসন খাতের ধ্বংস নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে এবং সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয় সাম্প্রতিক পদক্ষেপগুলো মূলত বিনিয়োগকারীদের ক্রমবর্ধমান ঝুঁকির বিষয়টিই নির্দেশ করছে। তবে বেইজিংয়ের এই ঋণ অপসারণ কার্যক্রমে ডেভেলপাররা সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত হবে। 

ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটিজ কোম্পানির বিশ্লেষক হুয়াং ওয়েপিং এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘নীতিনির্ধারকরা চলতি বছর আরো কোম্পানিকে ঋণখেলাপি হওয়ার সুযোগ দিবে। বিশেষ করে জ্বালানী খাতের রাষ্ট্রায়ত্ত্ব কোম্পানি এবং প্রোপার্টি ডেভেলপার কোম্পানিগুলো ঋণখেলাপি হবে বেশি। কারণ এই কোম্পানিগুলো আগ্রাসীভাবে ঋণ নিয়ে এখন বিপুল ঋণভারে জর্জরিত।’ 

তবে বিদ্যমান পরিস্থিতি নিয়ে বড় ধরনের সংকটে রয়েছে চীন। কারণ বিগত কয়েক বছর ধরে কর্পোরেট বন্ড খেলাপির মধ্যে ডেভেলপারদের হার অনেক বেড়েছে। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে এই হার আরো বেড়েছে। সূত্র: ব্লুমবার্গ

এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি