ঢাকা, সোমবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ৫ ১৪২৭

কুয়েতে অবৈধ অভিবাসীদের সাধারণ ক্ষমা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৫৩, ২৪ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ২১:০৮, ৩১ জানুয়ারি ২০১৮

অবৈধভাবে বসবাসরত বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে  কুয়েত সরকার। বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে এ খবর প্রকাশ করা হয়।

কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম ও বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর শ্রম আবদুল লতিফ খান এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

কুয়েতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস জানায়, যারা বিভিন্ন কারণে অবৈধ হয়ে কুয়েতে আছেন তাদের সাধারণ ক্ষমার সুযোগটি গ্রহণ করার জন্য বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে দূতাবাস তাদের সার্বিক সহযোগিতা করবে। আগামী ২৯ জানুয়ারি থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত  এ সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। অবৈধ অভিবাসীদের আইনি বিষয়ে সমাধান নেওয়ার এটিই অন্যতম সুযোগ। বিশেষ করে যারা দেশে চলে যেতে চায় তাদের জরিমানা পরিশোধ করতে হবে না।

এর জরিমানা পরিশোধ ছাড়াই কুয়েত ত্যাগের সাধারণ ক্ষমার এ সুযোগটি সর্বশেষ ২০১১ সালে দেওয়া হয়েছিল। এর পর এ বছর একই সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। জরিমানা পরিশোধ ছাড়াই কুয়েত ত্যাগ অথবা দৈনিক দুই দিনার করে সর্বোচ্চ ৬০০ দিনার দিয়ে বৈধভাবে কুয়েতে থাকা যাবে।

সাধারণ ক্ষমার নির্দিষ্ট সময়ের আগে  যদি কোনো অবৈধ অভিবাসী সেদেশের প্রশাসনের হাতে আটক হয় তাহলে তারা সাধারণ ক্ষমার আওতায় পড়বে না। যাদের নামে স্থানীয় আইনভঙ্গ করা কিংবা বড় ধরনের মামলা আছে তারা মামলার সমাধান করেই দেশে যেতে পারবে। সাধারণ ক্ষমার বিষয়ে অবৈধ অভিবাসীদের রেসিডেন্সি বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

জানা গেছে, সাধারণ ক্ষমায় বিভিন্ন দেশের ১ লাখ ৩০ হাজার অবৈধ অভিবাসীর বৈধ হওয়া ও দেশ ত্যাগের সুযোগ পাবে। তবে কতজন বাংলাদেশি অবৈধভাবে কুয়েতে অবস্থান করছেন  এ ব্যাপারে কোনো তথ্য এখনো জানা যায়নি।

কেআই/টিকে


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি