ঢাকা, মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯, || কার্তিক ২৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ক্ষোভে ছাদের গাছ কেটে ভাইরাল নারী, অবশেষে গ্রেফতার (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৩:২১ ২৩ অক্টোবর ২০১৯ | আপডেট: ১৩:৪৪ ২৩ অক্টোবর ২০১৯

সম্প্রতি একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। যাতে এক নারী দা দিয়ে ছাদে বাগান করা প্রতিবেশির বেশ কিছু গাছ কেটে ফেলছেন। আর সেই গাছের মালিক সুমাইয়া হাবিব ফেসবুকে তা ভিডিও করে প্রকাশ করেছেন। সেই সঙ্গে তিনি বারবার তাকে নিষেধ করেছেন গাছগুলো না কাটার জন্য।  কিন্তু কোন অনুরোধই কাজে আসেনি, বরং দা দিয়ে কুপিয়ে কুপিয়ে ছাদের সবগুলো গাছ তিনি কেটে ফেলেন।

জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে সাভারের সিআরপি রোডে একটি বাড়িতে। আর ভিডিওটি পোস্ট করেছেন গাছের মালিক সুমাইয়া হাবিব।

স্থানীয়রা জানান, যে বাড়িতে এই ঘটনা ঘটেছে সেখানে উভয় নারীর আলাদা আলাদা ফ্লাট রয়েছে। কিন্তু এদের মধ্যে সুমাইয়া হাবিব অর্থাৎ গাছের মালিক শখের বসে ছাদে গাছ লাগান। কেউ একদিন এই গাছের পাত ছিড়ে ফেললে তিনি সবাইকে বিষয়টি জানান। যা নিয়ে ভবনের সকল ফ্লাটের সদস্যদের মধ্যে একটি বৈঠকও হয়। এতে জানানো হয়, ছাদে কেউ গাছ লাগাতে পারবে না। এ জন্য একটি সময়ও বেধে দেওয়া হয়। কিন্তু সময় অতিক্রম হলেও তিনি গাছগুলো সরিয়ে নেননি। আর সেই সূত্র ধরে দুই নারীর মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দিলে এ কাণ্ডটি ঘটান অভিযুক্ত নারী।

এঘটনার পর সোশ্যাল মিডিয়াতে গাছ কাটা নারীকে নিয়ে ট্রোল শুরু হয়। যা দেখে দা দিয়ে গাছ কাটা নারীর ছেলে এক ভিডিও বার্তায় এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন।

সুমাইয়া হাবিব ভিডিওটি তার ফেসবুক ওয়ালে শেয়ারের পাশাপাশি একটি দীর্ঘ লেখা লিখেছেন।

তিনি লিখেছেন-
‘কখনো কি শুনছেন মানুষ গাছ অপছন্দ করে? গাছ পরিবেশ নষ্ট করে? এই মহিলার গাছ পছন্দ না। তার বক্তব্য, আমাদের গাছ ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে ফেলছে।
তাই এই মহিলা আমাদের সব গাছ কেটে ফেলছে। কি অপরাধ ছিল গাছের???? কি অপরাধ ছিল????? কেউ বলতে পারবেন??’

তিনি আরও লিখেন, ‘আমার মা গাছ অনেক পছন্দ করে, তাই ছাদের এক কোণায় আমরা কিছু গাছ লাগাইছিলাম, আর এই মহিলা আমাদের সাথে শত্রুতা করে আমাদের লাগানো গাছগুলা কেটে ফেললো। এই বিল্ডিং এ আমরা ২টা ফ্লাট কিনেছি। সবাই যার যার ক্রয়কৃত ফ্লাটে থাকে। ছাদে সবারই অধিকার আছে। আমরা আমাদের অধিকার থেকে কিছু গাছ লাগিয়েছি ছাদের একটা কোণায় কারণ আমরা ভাবতেও পারিনি গাছ মানুষ অপছন্দ করতে পারে। গাছ তো সৌন্দর্য বাড়ায়। আর তারা বলে আসছে আমাদের গাছ নাকি ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে দিছে। তারা অকারণে অন্যায়ভাবে আমাদের জীবন্ত এবং ফল ধরন্ত গাছগুলি কেটে ফেললো। আবার তার ছেলে ১০/১২ জন মাস্তান নিয়ে আসছে আমাদের উপর হামলা করার জন্য। আমাদের একটাই অপরাধ আমরা গাছ ভালবাসি। তাই শখ করে গাছ লাগিয়েছিলাম। আমরা তো অন্যের জায়গায় গাছ লাগাই নাই। আমরা আমাদের অধিকার থেকে গাছ লাগাইছিলাম। আমার মা এই গাছগুলিরে নিজের সন্তানের মতো যত্ন করে। আমরা গাছগুলোকে নিজের সন্তানের মতো ভালবাসতাম।’


সুমাইয়া হাবিব লিখেন, ‘মানুষ কিভাবে এতটা নিচে নামতে পারে??? গাছ তো তাদের কোনো ক্ষতি করে নাই। পুরা ছাদই তো ফাঁকা। এই মাগরিবের আযানের সময়, ওনার মাথায় সুন্নতি হিজাব কীভাবে পারলো এই ধরন্ত গাছগুলি কেটে ফেলতে। এর হয়তো কোনো বিচার হবে না। তবে আল্লাহর কাছে বিচার দিলাম। আল্লাহই বিচার করবে।’

এদিকে দা দিয়ে কুপিয়ে গাছ কেটে ফেলা সেই নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাভার মডেল থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) সাইফুল ইসলাম ওই নারীকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ছাদের টবে লাগানো গাছের মালিকের করা মামলায় ওই নারীকে গ্রেপ্তার করা হয় বলেও জানান ওসি।
এসএ/

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি