Ekushey Television Ltd.

খালার বাসাতে গা ঢাকা দিয়েছিলেন ওসি মোয়াজ্জেম

প্রকাশিত : ১২:০৪ ১৭ জুন ২০১৯ | আপডেট: ১২:২২ ১৭ জুন ২০১৯

গ্রেফতার এড়াতে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর নানা ছদ্মবেশে ঢাকাতে গা ঢাকা দিয়েছিলেন ওসি মোয়াজ্জেম। গ্রেফতারের আগে তিনি ঢাকাতে নিজ খালার বাসায় অবস্থান করেন বলে একাধিক সূত্রে জানা যায়।

গতকাল রোববার রাজধানীর হাইকোর্ট এলাকা থেকে শাহবাগ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। সবার পরিচিত চেহারার বাইরে এসে মুখ ভর্তি দাড়ি ও গোফের পরিবর্তিত চেহারায় মোয়াজ্জেমকে গ্রেফতারের দিন গোয়েন্দা পুলিশই বিভ্রান্ত হয়েছিল।

জানা যায়,  ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন গত ১০ জুন পর্যন্ত রাজধানীর কল্যাণপুরে এক খালার বাসায় ছিলেন। গোয়েন্দারা তাকে খুঁজছেন, বিষয়টি টের পেয়ে সটকে পড়ে কুমিল্লায় নিজের বাসা বাগিতে যান মোয়াজ্জেম। কিন্তু তিনি ওই বাড়িতে না উঠে আত্মগোপন করেন চান্দিনায়। সেখানে তার খালাতো ভাই আসাদুজ্জামান চান্দিনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

কিন্তু ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল তাকে গ্রেফতার করতে গত কয়েকদিন কুমিল্লায় অবস্থান করছিলেন। গোয়েন্দা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে শুক্রবার রাতে ওই বাসা থেকেও সটকে পড়ে আবার ঢাকায় চলে আসেন তিনি। ঢাকায় এসে খালার বাসায় না উঠে অন্য এক বন্ধুর বাসায় ওঠেন।

সেখান থেকে আগাম জামিনের আশায় রোববার উচ্চ আদালতে যান মোয়াজ্জেম। পলাতক জীবনে ওসি মোয়াজ্জেম কোন মোবাইলে কথা বলতেন না। কথা বলার জন্য তিনি বিভিন্ন অ্যাপস ব্যবহার করেন।

রোববার উচ্চ আদালত খুলবে এমন খবরে ওসি মোয়াজ্জেম ছদ্মবেশ নিয়ে হাইকোর্টে যান। এ দিন সকাল ১০টার দিকে আদালতে গেলে মুখে দাড়ি ও গোফ থাকার কারণে পুলিশ তাকে চিনতে পারেনি। আদালত তার জামিনের শুনানি সোমবারে পিছিয়ে দিলে তিনি দুপুরের পরে আদালত থেকে বেরিয়ে পড়েন।

মোয়াজ্জেম আদালতে আসতে পারেন এমন সংবাদের ভিত্তিতে আগে থেকেই সতর্ক অবস্থানে ছিল পুলিশ। পরে ঐ দাড়ি ও গোফওয়ালা ব্যক্তিই ওসি মোয়াজ্জেম এমনটি নিশ্চিত হওয়ার পর রোববার বিকাল চারটার দিকে হাইকোর্টের পাশের এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৭ মে তার বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইব্যুনাল থেকে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। এই পলাতক সময়ে তিনি পরের কর্মস্থল রংপুর, গ্রামের বাড়ি যশোর এবং কুমিল্লায় তার নিজ বাড়িতে অভিযান চালিয়েও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এমএম/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি