ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৩ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

চিকিৎসকদের আরো দায়ীত্বশীল হতে ডা. এ আর খানের আহ্বান

প্রকাশিত : ২২:৫৪ ২৬ মে ২০১৯

তত্বাবধারক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা. এ. আর. খান চিকিৎসকদের আরো দায়ীত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তাদের একটু মিষ্টি কথায় মৃত্যুশষ্যাসায়ী একটি রোগীও সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন।

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় রোববার দোহার নবাবগঞ্জ পেশাজীবী পরিষদ(ডিএনপিপি) আয়োজিত ইফতার মাহফিলে এ কথা বলেন তিনি।

প্রিয় এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, দোহার-নবাবগঞ্জ বহু বছরের পুরাতন সেতু বন্ধনে আবদ্ধ। আমার একে আপরের আত্মার আত্বীয়। বিনাসূতায় গাথা একটি মালা। দোহার-নবাবগঞ্জ পেশাজীবী পরিষদের মাধ্যমে পুনরায় এর বহিঃপ্রকাশ ঘটায় আমি অন্তর থেকে সবচেয়ে বেশী খুশি হয়েছি। দোহারের কৃতি সন্তান বলেন, আপনারা এ সংগঠনকে লালন পালন করেন, আমি আপনাদের পাশে আছি । এতো বয়স হয়েছে তার পরও মনের টানে আপনাদের সঙ্গে মিলিত হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। দলমতের উর্ধ্বে থেকে কাজ চালিয়ে যেতে হবে। আমি এই সংগঠনের সাফল্য কামনা করছি ।

সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইফতার উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক সাংবাদিক মো. রাশিম মোল্লার সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার সম্পাদক মাহবুবা চৌধুরী বলেন, আত্মার টানে সকলের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার জন্য চলে এসেছি। এমন একটি প্লার্ট ফর্ম আরো আগেই দরকার ছিল। তবে অনেক পড়ে হলেও যে হয়েছে সেজন্য আয়োজকদের প্রাণঢালা অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানাই। এই সংগঠনের কারণেই আজ আমরা সকলে এক কাতারে আসতে পেরেছি। সংগঠনের সব ধরণের উন্নয়ন কর্মকান্ডে আমার সার্বিক সহযোগিতা থাকবে।

এসোসিয়েশন ফর সোস্যাল সার্ভিসেস-এর চেয়ারপার্সন ও সংগঠনের উপদেষ্টা কে এম বাবর আশরাফুল হক বলেন, দোহার নবাবগঞ্জ পেশাজীবি পরিষদের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। বিভিন্ন পেশার ব্যাক্তিদের এক কাতারে নিয়ে আশায় আমাদের যে কোন সুযোগ সুবিধা গ্রহন করতে পারব। জাহাঙ্গাগীরনগর বিশ্বিবিদ্যালয়ের অধ্যাপাক ড. কবিরুল বাসার। তিনি দোহার- নবাবগঞ্জবাসীকে একত্রিত হওয়ার আহব্বান জানান। নিজ নিজ কমিউনিটির সহায়তার মাধ্যমে বৃহৎ কিছু গড়ে ওঠতে পারে। এনাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা: বাবুল মিয়া বলেন, এই সংগঠনের মাধ্যমে সকল পেশার মানুষগুলো এক হলে মানবিক সেবা প্রদান করা সম্ভব। তবে এই প্লার্টফর্মকে রাজনীতি মুক্ত রাখতে হবে। অনুষ্ঠানে ৭১ টিভির হেড অব নিউজ শাকিল আহামেদ বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্প বাস্তবায়ন হওয়ার পর দোহার-নবাবগঞ্জ হবে একটি সম্ভাবনাময় স্থান। তাই এখন থেকেই প্রস্তুতি গ্রহন করা উচিত। এলজিইডির প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মো. সেলিম মিয়া বলেন, পেশাজীবীদের এতো বড় জমায়েত এর আগে আমি দেখিনি। এছাড়া, আরো বক্তব্য রাখেন প্রধান মৎস্য কর্মকর্তা কৃষন্দু সাহা। সান করপোরেশনের সিও লুৎফর রহমান নাদিম।

সংগঠনের সভাপতি মো. আনিসুর রহমান খানের সভাপতিত্বে ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মো. মোস্তাক আহমেদ এর পবিত্র কোরআন তেলোয়াতের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের কাযক্রম শুরু হয়। বিকেল ৫ টার মধ্যেই রাজধানী সেগুনবাগিচার বাগিচা রেষ্টুরেন্টের ক্রিস্ট্রাল হল রুমটি কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। অনুষ্ঠানে দোহার নবাবগঞ্জের বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক, আইনজীবী, চিকিৎসক, প্রকৌশলী, সাংবাদিক, ব্যাংকার ও সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টেও আইনজীবী আবু সাঈদ, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক: খালিদ হোসেন সুমন, অর্থ সম্পাদক ব্যাংকার খালিদ বিন ওয়াহিদ (কনক), সহ অর্থ সম্পাদক ইখতিয়ার খান পরাগ, দপ্তর সম্পাদক শেরতাজ হোসেন খান, প্রচার সম্পাদক ব্যাংকার রানা ভূঁইয়া, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক অর্থমন্ত্রণালয়ের মো. মোজাম্মেল হোসেন, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক শিক্ষানবিশ আইনজীবী মোস্তাক আহমেদ, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের আনোয়ার হোসাইন, এডভোকেট ইবরাহীম আবীর ইবু, জাফর আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি