ঢাকা, শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ফাইনালে ঢাকা কলেজ

ঢাকা কলেজ সংবাদদাতা 

প্রকাশিত : ১৭:২২ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

'কিশোর গ্যাং কালচার প্রতিরোধে করণীয়' বিষয়টি নিয়ে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি ও এটিএন বাংলার যৌথ আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ এশিয়া কে হারিয়ে ফাইনালে যাওয়ার গৌরব অর্জন করেছে ঢাকা কলেজ। এতে সরকারি দল হিসেবে অংশ নেয় ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ এশিয়া এবং বিরোধী দল হিসেবে অংশ নেয় ঢাকা কলেজ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি ড.মো.মইনুর রহমান চৌধুরী।প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, কিশোর অপরাধের ব্যাপকতা পারিবারিক ও সামাজিক ব্যর্থতারই প্রতিফলন।এ অপরাধ প্রতিরোধে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শতভাগ সফল না হলেও বিফল নয়।  
সফলতা অর্জনের জন্য কিভাবে কার্যকর ভূমিকা নেয়া যায়, সে বিষয়ে আমরা সচেষ্ট আছি। কিশোর অপরাধের কারণে সৃষ্ট হত্যাকাণ্ড ও অন্যান্য দুঃখজনক ঘটনা সমাজের অন্যান্য শ্রেণি-পেশার মতো আমাদেরকেও পীড়িত করে। এ ধরনের অপরাধ প্রতিরোধে কোন রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ বা চাপ নেই। এমনকি এক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোনো অবহেলাও নেই। 
কিশোর অপরাধ প্রতিরোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি পরিবার ও সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে। একইসাথে তথ্য প্রযুক্তিকে অপরাধমূলক কাজে মইনুর রহমান চৌধুরী আরও বলেন, সম্প্রতি শুরু হওয়া ক্যাসিনো বা জুয়া খেলার সংস্কৃতি বন্ধ করা জরুরি। এই সংস্কৃতি আমাদের পরিবার ও সমাজকে কলুষিত করছে। এ ধরনের অপরাধের রাজনৈতিক সদিচ্ছা রয়েছে এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সচেষ্ট। কাজেই ক্যাসিনো নির্মূল অভিযান চলমান থাকবে। 
অনুষ্ঠানের সভাপতি ও ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ চৌধুরী কিরণ বলেন, কিশোর গ্যাং আলসার প্রতিরোধে রাজনৈতিক সদিচ্ছা খুবই জরুরি। রাজনীতিবিদরা যাতে তাদের মিটিং, মিছিল ও সমাবেশে অনৈতিকভাবে কিশোর-তরুণদের ব্যবহার না করে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।লাগামটানা না গেলে আদনান ও রিফাত হত্যার মতো আরো অনেক অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটবে। তাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো কঠোর হতে হবে। একই সাথে বাবা-মাকে সন্তানের প্রতি আরো যত্নবান হতে হবে।
তিনি বলেন, এ সকল উঠতি বয়সের কিশোররা তাদের প্রভাব প্রতিপত্তি প্রদর্শন করতে গিয়ে নানা ধরনের অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। ইভটিজিং, সংঘবদ্ধ হয়ে মারামারি, গ্রুপ করে বেআইনিভাবে দ্রুতগতিতে গাড়ি বা মোটরসাইকেল চালানো, সন্ত্রাসী কার্যকলাপ, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, রাহাজানি থেকে শুরু করে বিভিন্ন অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছে কিশোর গ্যাংরা।
প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন, অধ্যাপক আবু মো. রইছ, সাংবাদিক পারভেজ রেজা, সাংবাদিক নেসারুল ইসলাম খোকন, উন্নয়ন বিশ্লেষক ডক্টর এস এম মোর্শেদ এবং জেন্ডার এক্সপার্ট  নিশাত সুলতানা।
আই/কেআই

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি