ঢাকা, সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

নবাবগঞ্জে বন্ধুদের হাতে যুবলীগ নেতা খুন

প্রকাশিত : ১১:০৫ ১৭ জুন ২০১৯ | আপডেট: ১২:০৭ ১৭ জুন ২০১৯

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় নিজ বাড়িতে মাদক কারবারী বন্ধুদের হাতে খুন হয়েছেন এক যুবলীগ নেতা।

রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার শোল্লা ইউনিয়নের আটকাহুনিয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. আরিফুল ইসলাম (৩৫) এলাকার মৃত জামাল হোসেনের ছেলে এবং শোল্লা ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে নবাবগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক আবুল হোসেন বলেন, ‘আরিফের বন্ধু একই এলাকার রতন, পিয়াসসহ আরও কয়েকজনের সঙ্গে পূর্ব বিরোধ ছিল। এর জেরে রোববার সন্ধ্যায় কয়েকজন ব্যক্তি তার বাড়ির সামনে ওৎ পেতে ছিল। তিনি বাড়ির সামনে আসা মাত্র তার উপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে অর্তকিত হামলা চালানো হয়।

তিনি বলেন, এ সময় বাঁচার জন্য আরিফুল দৌড়ে ঘরের ভিতর প্রবেশ করে দরজা লাগিয়ে দিলেও শেষ রক্ষা হয়নি। হামলাকারীরা ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে আরিফুলকে এলোপাতারি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।’

এরপর স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে রাত ৮টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আরিফুলের মরদেহ উদ্ধার করে। সেই সঙ্গে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। সোমবার সকালে নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

প্রাথমিক তদন্তের বরাত দিয়ে নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম একুশে টিভিকে বলেন, ‘যারা আরিফকে হত্যা করেছে তারা সকলেই তার বন্ধু ছিল। এক সময় তারা সকলেই এক সঙ্গে চলাফেরা করতেন। কিছুদিন আগে আরিফুলের বন্ধু রতন ইয়াবাসহ মানিকগঞ্জে গ্রেফতার হয়েছিল। তার ধারণা ছিল আরিফই তাকে ধরিয়ে দিয়েছিলেন। তার জের ধরেই সে কয়েকজনকে নিয়ে এ হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।’

এ ঘটনায় তদন্ত চলছে। এখনও কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

এমএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি