ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ৭ ১৪২৭

নিমাই ভট্টাচার্য বাংলাদেশেরই সন্তান

প্রকাশিত : ১৪:৪৭, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ | আপডেট: ১৪:৪৮, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

নিমাই ভট্টাচার্য, বিশিষ্ট এই সাংবাদিক ও ঔপনাসিকের জন্ম মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার শরুশুনা গ্রামে। সম্ভ্রান্ত ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্ম নেয়া এই মানুষটির শৈশব চিত্রা নদীর পাড়ের গ্রামে কাটলেও এখন তিনি স্বপরিবারে বাস করছেন পশ্চিমবঙ্গে। দেশভাগের সময় ভারতে পাড়ি দেয়া মানুষটি যে বাংলাদেশেরই সন্তান তা জানে না নতুন প্রজন্মের অনেকেই। শব্দের মধ্য দিয়ে হাজারো পাঠকের সাথে এক মেমসাহেবের পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন কালজয়ী ঔপনাসিক নিমাই ভট্টাচার্য। উপন্যাসটি নিয়ে তৈরি হয় সিনেমা মেমসাহেব- বইয়ের মতই জনপ্রিয় হয় সিনেমাটিও। এখানে ভালোবাসার মানুষকে জীবনযুদ্ধে জয়ী করানোর সংগ্রাম করেছেন অধ্যাপিকা এক নারী। জীবন সংগ্রামের তাগিদে ভালোবাসা থেকে দূরে থাকা আর সবশেষে প্রিয়মানুষ হারানোর বেদনা নিয়ে শেষ হয় এর গল্প। এছাড়াও নিমাই ভট্টাচার্য রচনা করেছেন তোমাকে, গোধূলীয়া, অষ্টাদশী, স্বপ্নভঙ্গ, মৌ আর প্রেয়সীর মতো উপন্যাস। পেশায় সাংবাদিক এই লেখকের ভান্ডারে আছে বিপ্লবী বিবেকানন্দ, চিড়িয়াখানা, রিপোর্টার আর ডিপ্লোম্যাটের মতো রচনাও। ১৯৩১ সালের ১০ এপ্রিল মাগুরার শালিখায় জন্ম নেয়া নিমাইয়ের ছেলেবেলা কাটে চিত্রা নদীর দক্ষিণ পাড়ের শরুশুনা গ্রামে। ৪৭’এ দেশভাগের সময় পরিবার নিয়ে ভারতে পাড়ি জমান নিমাই। ১৯৮৫ সালে একবার স্ত্রীকে নিয়ে নিজ গ্রামে বেড়াতে এসে মুঠো ভরে নিয়ে যান জন্মভূমির মাটি। গুণী এই মানুষটির ব্যাপারে খুব বেশি জানা নেই নতুন প্রজন্মের অনেকেরই। তাই তাকে জন্মভূমিতে আবারো দেখতে চায় এলাকার মানুষ।
Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি