ঢাকা, মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

পরিবারের জন্য অমিতাভ আমাকে অস্বীকার করেন: রেখা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:৫৬ ১৫ নভেম্বর ২০১৯

১৯৭৬ সালে ‘দো আনজান’র শ্যুটিং সেটে তাঁদের পরিচয় হয়েছিল। তারপর সিলসিলার মতো একাধিক সিনেমায় এক সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছেন। সেই থেকে তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে মানুষের গুঞ্জনের অন্ত নেই। নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে তাঁরা কখনও মুখ না খুললেও বি টাউনের আনাচে কানাচে তাঁদের নিয়ে আলোচনা এখনও অব্যাহত। এখানে যাদের সম্পর্কের কথা বলা হচ্ছে তারা হলেন অমিতাভ ও রেখা।

জানা যায়, ১৯৮৪ সালে ফিল্মফেয়ারের একটি সাক্ষাতকারে অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খোলেন রেখা। সেখানে তিনি বলেন, ‘তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে এক একজন এক একরকম কথা বলেন। তাঁর সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টি অমিতাভও সব সময় অস্বীকার করেছেন। কিন্তু অমিতাভ যা করেছেন তাঁর নিজের পরিবারের জন্য, নিজের স্ত্রীর জন্য এবং নিজের সন্তানদের ভবিষ্যতের জন্য। তাই তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক অস্বীকার করে অমিতাভ যা করেছেন, তা একেবারে ঠিক।’ 

কেন অন্য কাউকে জানাতে হবে, অমিতাভের উপর তাঁর ভালবাসার কথা। কিংবা তাঁর প্রতি অমিতাভের ভালবাসার কথা। এমন কথাও শোনা যায় রেখার গলায়।

কে কী বলল না বলল সে দিকে মনোযোগ না দিয়ে স্পষ্টভাবে রেখা জানান, অমিতাভ এ কথা অস্বীকার করলে, লোকে তাঁকে করুনার চোখে দেখে। তাতে তাঁর কিছু আসে যায় না। 

পাশাপাশি বলিউডের এই বর্ষীয়ান অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘কেউ কষ্ট পাচ্ছেন, অমিতাভ বচ্চন কখনও তা সহ্য করতে পারেন না। স্ত্রীর কষ্ট কীভাবে সহ্য করবেন, এমন প্রশ্নও তোলেন রেখা।’

উল্লেখ্য, অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে রেখার সম্পর্ক নিয়ে যতই গুঞ্জন চলুক না কেন পুত্র বধু ঐশ্বরিয়া রায় তাকে বেশ পছন্দ করেন। কয়েকটি অনুষ্ঠানে রেখাকে মা বলে সম্বোধন করতে দেখা যায় ঐশ্বরিয়াকে। পাশাপাশি কখনও রেখাকে প্রণাম করে তাঁর হাত ধরে অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে নেমে আসতেও দেখা যায় অভিষেক বাচ্চনের এ স্ত্রীকে।

এমএস/এসি
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি