ঢাকা, বুধবার   ০৫ আগস্ট ২০২০, || শ্রাবণ ২১ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

পর্ণোগ্রাফি আইনে শিক্ষিকার মামলায় সাবেক স্বামী গ্রেপ্তার

বাগেরহাট প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৫:০৮ ১৩ জুলাই ২০২০

এনায়েত করিম রাজিব

এনায়েত করিম রাজিব

বাগেরহাটে পর্ণোগ্রাফি আইনে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকার মামলায় তার সাবেক স্বামী এনায়েত করিম ওরফে রাজিবকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার (১২ জুলাই) গভীর রাতে উপজেলা সদরের খেয়াঘাট এলাকা থেকে মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশ এনায়েত করিমকে গ্রেপ্তার করে।

এর আগে ওইদিন সন্ধ্যায় স্বামী এনায়েত করিম ওরফে রাজিবের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ২/৩ জনকে আসামি করে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন ওই শিক্ষিকা। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুরে এনায়েত করিম ওরফে রাজিবকে আদালতে সোপর্দ করেছে মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত এনায়েত করিম ওরফে রাজিব মোরেলগঞ্জ উপজেলার বারুইখালি গ্রামের একেএম মজিদের ছেলে।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, একজন স্কুল শিক্ষিকা তার সাবেক স্বামী এনায়েত করিম ওরফে রাজিবের বিরুদ্ধে পর্ণোগ্রাফি আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলায় তিনি উল্লেখ করেন- স্ত্রী থাকা অবস্থায় ইচ্ছার বিরুদ্ধে এনায়েত করিম বেশকিছু আপত্তিকর ছবি ধারণ করে রাখেন। এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় এনায়েত করিম ওই শিক্ষিকাকে তালাক প্রদান করেন। পরে এনায়েত করিমের কাছে থাকা সেই আপত্তিকর ছবি প্রিন্ট করে বিভিন্ন দপ্তর ও গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে প্রেরণ করেন। বিভিন্ন মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করে মোটা অংকের চাঁদাও দাবি করেন। 

এ ঘটনা উল্লেখ করে ওই শিক্ষক বাদী হয়ে সাবেক স্বামী এনায়েত করিমের নাম উল্লেখসহ আরও দুই তিনজনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

মামলার বাদী ওই শিক্ষিকা বলেন, স্বামী হিসেবে থাকা অবস্থায় এনায়েত করিম রাজিব সামাজিক, মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করত। এমন কোন খারাপ কাজ নেই যা সে করেনি। জোরপূর্বক আমার উলঙ্গ ছবিও ধারণ করেছে। আমাকে তালাক দিয়েও ক্ষান্ত হয়নি সে। মোটা অংকের টাকা দাবিতে আমার ফেসবুক আইডিতে আজেবাজে কমেন্টস করত এবং ৪টি মুঠোফোন নাম্বার দিয়ে বিভিন্ন সময় চাঁদা দাবি করত। শেষ পর্যন্ত আমাকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য বিভিন্ন দপ্তর ও গণমাধ্যমে আমার আপত্তিকর ছবি প্রেরণ করে। আমি এই প্রতারকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। যে শাস্তির মাধ্যমে কোন পুরুষ নামের কোন প্রতারক এভাবে নারীদের সম্মান নষ্ট করার সাহস না পায়।

এ বিষয়ে ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, শিক্ষিকার মামলায় আসামি রাজিবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় অন্য যারা জড়িত রয়েছে তদন্ত পূর্বক তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

এনএস/


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি