ঢাকা, মঙ্গলবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, || আশ্বিন ৭ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

পৃথিবীর যেসব দেশে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট রয়েছে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৩২ ১২ আগস্ট ২০২০

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের গুদামে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ও প্রাণহানির পর বিশ্বব্যাপী উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। সারা বিশ্বেই সার উৎপাদন কিংবা খনিতে ব্যবহারযোগ্য বিস্ফোরক হিসেবে এর মজুত রয়েছে। কিন্তু এই বিপজ্জনক দ্রব্যটি কোন কোন জায়গায় কতদিন পর্যন্ত মজুত রাখা যেতে পারে, সে ব্যাপারে কিছু কড়াকড়ি নিয়ম রয়েছে। আর দ্রব্যটি বোমা তৈরিতে ব্যবহৃত হয় বলে এর অবস্থান সাধারণ গোপনই রাখা হয়। 

ভারত
ভারতে অ্যামোনিয়াম নাইটেট্রের মজুত রয়েছে। দেশটির অন্যতম বড় শহর চেন্নাই থেকে মাত্র আধমাইল দূরে ৩৭টি কন্টেইনারে ৭৪০ টন বিস্ফোরক মজুত রাখা হয়েছে। ২০১৫ সালে একটি প্রতিষ্ঠান কৃষিকাজে ব্যবহার করার জন্য সার তৈরির উপকরণ হিসেবে এই বিস্ফোরক দক্ষিণ কোরিয়া থেকে আমদানি করেছিল। এর বিরুদ্ধে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য তামিলনাড়ু আইনি লড়াই চালিয়ে আসছে। তবে এতদিন ধরে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটি এতে কান না দিলেও সম্প্রতি বৈরুত বিস্ফোরণে পর তাদের টনক নড়েছে। ৬৯৭ টন বিস্ফোরক তারা সরিয়ে নিয়েছে প্রতিবেশী রাজ্য তেলেঙ্গনায়। ২০১৫ সালের বন্যায় কিছু বিস্ফোরক অবশ্য নষ্ট হয়ে গিয়েছিল।

ইয়েমেন
দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দর শহর এডেনে ১০০ কন্টেইনারের বেশি অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট রয়েছে। সংবাদ মাধ্যমে এরকম খবর আসার পর দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল এই বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এসব বিস্ফোরক তিন বছর পূর্বে আমদানি করা হয়েছিল। ইয়েমেনে জাতিসংঘ স্বীকৃত ও সৌদিসমর্থিত সরকার তা বাজেয়াপ্ত করে নেয়। এডেনের গভর্নর তারিক সালাম বলেছেন, বন্দরে মোতায়েন করা সেনারাই এই বিপজ্জনক পদার্থ মজুত রাখার জন্য দায়ী। ১৩০টি শিপিং কন্টেইনারে রাখা বিস্ফোরকের পরিমাণ ৪ হাজার ৯০০ টনের কম হবে না। তবে এডেন পোর্ট কর্পোরেশনের কর্তারা বলেছেন, এটা বিস্ফোরক নয়, কৃষিতে ব্যবহার করার জন্য অর্গানিক ইউরিয়া মাত্র। ইরাক : ইরাকের বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে মজুত রয়েছে বিস্ফোরক পদার্থ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট। লেবাননে বিস্ফোরণের পর ৯ আগস্ট একজন সামরিক কর্মকর্তা বলেছেন, ইরাকি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সামরিক প্রকৌশল অধিদপ্তর বিমান বন্দর থেকে ওই বিস্ফোরক তাদের নিজস্ব অয়্যারহাউজে সরিয়ে নিয়েছে। 

অস্ট্রেলিয়া
বৈরুতে বিস্ফোরণের আগে থেকেই অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের নিউক্যাসলে মজুত বিশাল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট সরিয়ে নেয়ার দাবি উঠেছিল। বলা হয়েছিল, শহর থেকে তিন কিলোমিটার দূরের গুদামে রক্ষিত ওই বিস্ফোরক সরিয়ে ফেলা হোক কিংবা নষ্ট করে ফেলা হোক। কিন্তু বিস্ফোরক মজুতকারী প্রতিষ্ঠান ওরিসার দাবি, খনির কাজে সরবরাহের জন্য মজুত তাদের বিস্ফোরক নিরাপদেই রাখা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার কর্মস্থল ও কাজের পরিবেশ পর্যবেক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান সেফওয়ার্ক এসএ বলেছে, বিস্ফোরকগুলো সাবধানেই রাখা আছে। 

যুক্তরাজ্য
ইমিংহ্যামের লিঙ্কনশায়ারে রক্ষিত অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট সম্পর্কে অ্যাসোসিয়েটেড ব্রিটিশ পোর্ট বলেছে, বিস্ফোরকগুলো কঠোর নিরাপত্তা ও নজরদারিতে রয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল কার্গো হ্যান্ডলিং কোঅর্ডিনেশন অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান রিচার্ড ব্রাফ বলেন, এটা বিপজ্জনক, এটা মনে রেখেই মজুদ রাখা হয়েছে। 

সূত্র : বিবিসি।


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি