ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০, || কার্তিক ৮ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

বাউফলে বিদ্যালয়ের গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২৩:৩৯ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

সৌন্দর্য বর্ধনের নামে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার বীরপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রজাতির ১৬টি গাছ কেটে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

বনবিভাগের অনুমতি ছাড়াই ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম রাসেল ওই গাছগুলো কেটে বিক্রি করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

গতকাল বুধবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, গাছগুলো কাটার পরে টমটমে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ১৬টি গাছের মধ্যে মেহগনী গাছ ১৪টি, শিশু গাছ ১টি ও বকুল ফুল গাছ ১টি। এর আগে পাঁচ দিন আগ থেকে কয়েকজন শ্রমিক ওই গাছগুলো কাটা শুরু করেন। গতকাল কাটা শেষ হয়।

উপস্থিত মো. গিয়াস উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি বলেন, গাছগুলো তিনি প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে ৪০ হাজার টাকায় ক্রয় করেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গাছ ব্যবসায়ী বলেন,‘গাছগুলো খুবই কম দামে বিক্রি করা হয়েছে। এর মূল্য হবে কমপক্ষে এক লাখ টাকা।’

নিয়মানুযায়ী কোনো প্রতিষ্ঠানের গাছ কাটতে হলে বন বিভাগের অনুমতি লাগে। কিন্তু ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেই নিয়ম অমান্য করেছেন।

নিজাম উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি বলেন,‘উল্টোপথে চলছে বিদ্যালয়টি। সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য সাবেক প্রধান শিক্ষক গাছ লাগিয়েছেন। আর বর্তমান প্রধান শিক্ষক সৌন্দর্য বর্ধনের নামে গাছ কেটে বিক্রি করছেন।’

স্থানীয় বাসিন্দা ও ওই বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য মুক্তিযোদ্ধা বিজয় কৃষ্ণ দাস বলেন,‘এর আগেও প্রধান শিক্ষক ওই বিদ্যালয়ের বিপুল পরিমান গাছ এক লাখ টাকায় বিক্রি করে আত্মসাৎ করেছেন।’

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম রাসেল বলেন,‘গাছগুলোর কারণে সৌন্দর্য বিনষ্ট হচ্ছে। আগামি বছর জানুয়ারি মাসে বিদ্যালয়টির শতবর্ষ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। এই কারণে গাছ কাটার জন্য এলাকাবাসির চাপ ছিল। তাই এডহক কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক গাছগুলো বিক্রি করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির (এডহক) সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা্ মো. ইউসুফ আলী হাওলাদার বলেন,‘আমার জানা মতে, গত বছর ধার-দেনা করে বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই দেনা পরিশোধের জন্য প্রধান শিক্ষক ও সাধারণ শিক্ষকেরা সিদ্ধান্ত নিয়ে গাছ বিক্রি করেছে। আজকে (বুধবার) প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানলাম এ বিষয়ে নাকি রেজুরেশনও হয়েছে। তবে আমার মনে পড়ছে না।’
কেআই//


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি