Ekushey Television Ltd.

ব্যারিস্টার সুমনকে ধন্যবাদ জানালেন নুসরাতের মা

প্রকাশিত : ১৪:৪৩ ১৭ জুন ২০১৯

ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনকে গ্রেফতার করায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে নুসরাত জাহান রাফির পরিবার।

গতকাল রোববার তাকে গ্রেফতারের পর সাংবাদিকদের কাছে স্বস্তির কথা প্রকাশ করেন রাফির মা, ভাই ও বাবা। তার গ্রেফতারের খবরে নুসরাতের পরিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ব্যারিস্টার সুমনসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

শোকাহত মা শিরিন আক্তার বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আমার মেয়ে হত্যার বিচারের দায়িত্ব নিয়েছেন। যার কারণেই এ মামলার কার্যক্রম দ্রুত এগিয়ে চলছে।’ ব্যারিস্টার সুমনের করা মামলায় ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতার হয়েছেন বলে তিনি সুমনকেও ধন্যবাদ জানান।

নুসরাতের মা বলেন, ‘আমার মেয়ের হত্যাকে ওসি মোয়াজ্জেম আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা করেছিল।’ তিনি ওসি মোয়াজ্জেমের কঠোর শাস্তি দাবি করেন।

গতকাল রোববার রাতে নুসরাতের বড় ভাই এবং নুসরাত হত্যা মামলার বাদী মাহমুদুল হাসান নোমান একুশে টেলিভিশনকে বলেন, ‘এই গ্রেফতারে আমরা সন্তুষ্টি প্রকাশ করছি। এ গ্রেফতারের মাধ্যমে পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে বলে আমি মনে করি। আমি ধন্যবাদ জানাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কেননা তার হস্তক্ষেপের কারণেই মামলা এতটুকু অগ্রসর হয়েছে।’

উল্লেখ্য, ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত গত ২৬ মার্চ তার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ করলে তাকে (নুসরাত) থানায় ডেকে জবানবন্দির নামে হয়রানি করে ভিডিও করেছিলেন ওসি মোয়াজ্জেম। তার কয়েক দিনের মাথায় নুসরাতের গায়ে অগ্নিসংযোগ করা হলে সারাদেশে আলোচনা শুরু হয়।

তখন ওই জবানবন্দির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ এপ্রিল নুসরাতের মৃত্যু হলে ১৫ এপ্রিল ওসি মোয়াজ্জেমকে আসামি করে ঢাকায় বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন আইনজীবী সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। পরে ২৭ মে আদালত তার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন।

এমএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি