ঢাকা, শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক ৩ 

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৭:২৪ ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১৭:২৭ ১৩ নভেম্বর ২০১৯

ভারতে পাচারকালে বুধবার বেনাপোল পোর্ট থানার আমড়াখালী, দৌলতপুর ও ঘিবা সীমান্তে পৃথক অভিযান চালিয়ে ১৬ পিস (৩ কেজি ৪৮৫ গ্রাম) স্বর্ণের বারসহ এক নারী ও দুই যুবক স্বর্ণ পাচারকারীকে আটক করেছে বিজিবি সদস্যরা।
    
যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর নজরুল ইসলাম জানান, বেনাপোল সীমান্ত পথে বিপুল পরিমান স্বর্ণ পাচার হয়ে ভারতে যাচ্ছে এমন ধরনের গোপন সংবাদ পেয়ে বিজিবির একটি টহলদল বুধবার সকাল ৮টার দিকে আমড়াখালি বিজিবি চেকপোস্টে অভিযান চালিয়ে যশোরের আর এন রোড এলাকার মনির উদ্দিনের ছেলে রবিউল ইসলাম (৩৬) কে আটক করে। পরে তার প্যান্টের বেল্টের মধ্যে অভিনব কায়দায় রাখা আট পিস (৭৮৫ গ্রাম) স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়।

একই ব্যাটালিয়নের ঘিবা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার ওবায়দুল হকের নেতৃত্বে একটি টহল দল ঘিবা সীমান্তের মাঠ থেকে দিলীপ বিশ্বাস (৩৫) নামে এ যুবককে আটক করে। পরে তার শরীর তল্লাশি করে বড় দুইটি স্বর্ণের বার (এক কেজি ৯শ‘৯৮ গ্রাম) উদ্ধার করে। স্বর্ণের বারগুলো ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাচ্ছিল বলে বিজিবি- ১ এর কাছে স্বীকার করেছে। আটক দিলিপ বেনাপোলের ঘিবা গ্রামের নরেন বিশ্বাসের ছেলে।

অপরদিকে খুলনা ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মোহাম্মদ মনজুর-ই-এলাহী জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বেনাপোলের দৌলতপুর ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার মশিয়ার রহমানের নেতৃত্বে বিজিবি‘র একটি টহলদল দৌলতপুর সীমান্তের সড়ক থেকে মনিরা খাতুন (২৫) নামে এক নারীকে আটক করা হয়। 

পরে তার শরীর তল্লাশি করে ছয়টি স্বর্ণের বার (৭০০ গ্রাম) উদ্ধার করা হয়। আটক মনিরা খাতুন বেনাপোলের বড়আঁচড়া গ্রামের রমজান আলীর স্ত্রী।

আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে অর্থের বিনিময়ে ভারতে সোনা পাচার করে আসছিল। আটক সোনার মূল্য এক কোটি ৭৫ লাখ টাকা। এ ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানায় তিনটি পৃথক মামলা হয়েছে বলে বিজিবি জানায়। 

কেআই/আরকে
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি