ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, || আশ্বিন ৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

‘মহানায়ক’র জন্মদিন আজ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৩:১১ ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঢাকাই সিনেমার দর্শকপ্রিয় অভিনেতা বুলবুল আহমেদ। এ ‘মহানায়ক’র জন্মদিন আজ। বাংলা সিনেমার সোনালি দিন যাদের হাত ধরে এসেছিল তিনি তাদেরই একজন। একই সঙ্গে সুদর্শন, সুশিক্ষিত, মার্জিত ও রুচিশীল এই অভিনেতা অভিনয় গুণে জায়গা করে নিয়েছিলেন সব শ্রেণীর দর্শকের অন্তরে।

১৯৪১ সালের ৪ সেপ্টম্বর পুরান ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন বুলবুল আহমেদ। আবদুল্লাহ আল মামুন নির্মিত তার অভিনীত প্রথম টিভি নাটক ‘বরফ গলা নদী’।

বুলবুল আহমেদের উল্লেখযোগ্য টিভি নাটক হলো—‘মালঞ্চ’, ‘ইডিয়েট’, ‘মাল্যদান’, ‘বড়দিদি’, ‘আরেক ফাল্গুন’ ইত্যাদি। ধারাবাহিক ও খণ্ড নাটক মিলিয়ে প্রায় চার শতাধিক নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। ১৯৭৩ সালে আবদুল্লাহ ইউসুফ ইমামের (ইউসুফ জহির) ‘ইয়ে করে বিয়ে’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় পা রাখেন। পরের বছর আবদুল্লাহ আল মামুনের ‘অঙ্গীকার’ সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। দুটি সিনেমা বাজিমাত করে। তবে বুলবুল আহমেদ ঢাকাই সিনেমার দর্শকের কাছে চিরদিন শ্রদ্ধেয় হয়ে থাকবেন শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের অমর সৃষ্টি ‘শ্রীকান্ত’ ও ‘দেবদাস’ চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় গুণে।

‘রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত’ ও ‘দেবদাস’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে সকল শ্রেণীর দর্শকের অন্তরে স্থান করে নেন বুলবুল আহমেদ। এছাড়া ‘মহানায়ক’, ‘সীমানা পেরিয়ে’, ‘সূর্য্য কন্যা’ সিনেমায় বুলবুল আহমেদ নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন অনন্য উচ্চতায়। বুলবুল আহমেদ অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হলো— ‘ধীরে বহে মেঘনা’, ‘জীবন নিয়ে জুয়া’, ‘রূপালী সৈকতে’, ‘বধূ বিদায়’, ‘জন্ম থেকে জ্বলছি’, ‘দি ফাদার’, ‘এই ঘর এই সংসার’, ‘দুই নয়নের আলো’ ইত্যাদি।

‘ওয়াদা’, ‘মহানায়ক’, ‘ভালো মানুষ’, ‘রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত’, ‘আকর্ষণ’, ‘গরম হাওয়া’, ‘কত যে আপন’ প্রভৃতি সিনেমার সফল নির্মাতাও বুলবুল আহমেদ।

উল্লেখ্য, বুলবুল আহমেদ পড়াশোনা করেছেন ঢাকার কলেজিয়েট স্কুল, নটরডেম কলেজ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। তবে কিছুদিন সিলেট এমসি কলেজেও পড়াশোনা করেছেন।

বুলবুল আহমেদ বিয়ে করেছিলেন অভিনেত্রী ডেইজি আহমেদকে। এই দম্পতির তিন সন্তান। তারা হলেন, মেয়ে ঐন্দ্রিলা ও তিলোত্তমা এবং ছেলে শুভ।

অভিনয়ের জন্য বুলবুল আহমেদ চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেছেন। ১৯৭৭ সালে ‘সীমানা পেরিয়ে’, ১৯৭৮ সালে ‘বধু বিদায়’, ১৯৮০ সালে ‘শেষ উত্তর’ ও ‘১৯৮৭ সালে ‘রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত’ সিনেমার জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করে নেন।

এসএ/

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি