ঢাকা, শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

প্রস্তুত ৮টি উদ্ধারকারী জাহাজ

মহাবিপদ সংকেতেও আশ্রয়কেন্দ্রে যায়নি দূর্গতরা

মোংলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১০:৫৩ ৯ নভেম্বর ২০১৯

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে ১০নং মহাবিপদ সংকেত জারির পরও মোংলায় এখনো আশ্রয় কেন্দ্রে যায়নি দূর্গতরা। তবে তাদের আশ্রয় কেন্দ্রে জোর করে নেওয়ার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে তৎপরতা চালানো হচ্ছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাহাত মান্নান। ইউএনও জানান, আমরা এখন বের হচ্ছি, দূর্গতদের আশ্রয় কেন্দ্রে নেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছি।

তবে একটি প্রস্তুতি সভা ছাড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দৃশ্যমান কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি। পৌর কর্তৃপক্ষ, পুলিশ, বন্দর কর্তৃপক্ষ ও ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে দূর্গতদের আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার ব্যাপারে দফায় দফায় সতর্কমূলক মাইকিং করা হলেও, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তেমন তৎপরতা চোখে পড়েনি।

এদিকে মহাবিপদ সংকেত জারি হলেও এখনো তিনটির মধ্যে বিপদ সংকেতের একটি পতাকা উড়তে দেখা যায়। এতে করে জনসাধারণের মধ্যে নানা রকম বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে।

১০নং মহাবিপদ সংকেতে প্রস্তুতি নিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। বন্দরে অবস্থান করা দেশি-বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজগুলোকে পশুর চ্যানেলে নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়েছে।
এছাড়া বন্ধ রাখা হয়েছে মোংলা বন্দরে জাহাজ আগমন ও নির্গমন। বন্দরের হারবার মাষ্টার কমান্ডার শেখ ফকর উদ্দিন এ তথ্য জানিয়ে বলেন, তাদের পক্ষ থেকে এমটি ‘সুন্দরবন’, এমটি শিপসা ও এমটি অগ্নিপ্রহরী নামে উদ্ধারকারী জাহাজ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

এছাড়া, কোষ্টগার্ডের পক্ষ থেকেও প্রস্তুত রাখা হয়েছে কামরুজ্জামান, মুনসুর আলী, স্বাধীন বাংলা, সোনার বাংলা ও অপারেজয় বাংলা নামে পাঁচটি উদ্ধারকারী জাহাজ।
এআই/

 

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি