ঢাকা, বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ৬ ১৪২৭

শেরপুরে বন্ধুকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে যুবক গ্রেফতার, পিস্তল উদ্ধার

প্রকাশিত : ২২:৪৮, ৫ জুলাই ২০১৯ | আপডেট: ২২:৫০, ৫ জুলাই ২০১৯

শেরপুর শ্রীবরদী উপজেলার কাকিলাকুড়া ইউনিয়নের খামারপাড়া এলাকায় বন্ধুকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে ময়মনসিংহ মহানগরীর চরপাড়া এলাকা থেকে স্থানীয় পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেফতার করে শ্রীবরদী থানা পুলিশ। পরে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী তল্লাশী চালিয়ে পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, শ্রীবরদীর খামারপাড়া এলাকার আব্দুস সালামের ছেলে আলেক মিয়াকে একই এলাকার মামুন মিয়ার ছেলে সোহাগ মিয়া বৃহস্পতিবার সকালে নিজ বাড়িতে ডেকে আনেন। ঘরের ভেতরে নিয়ে আলেক মিয়ার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে পালিয়ে যান সোহাগ।

স্থানীয়রা গুলির শব্দ শুনতে পেয়ে এ সময় ঘরের ভেতর গিয়ে আলেককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হলে আলেককে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সিটি স্ক্যান করলে আলেকের মাথায় গুলি লাগার বিষয়টি ধরা পড়লে শুক্রবার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে গুলিবিদ্ধ আলেক মিয়ার স্ত্রী মর্জিনা বেগম বাদী হয়ে সোহাগকে আসামী করে শ্রীবরদী থানায় মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার দুপুরে ময়মনসিংহ মহানগরীর চরপাড়া এলাকা থেকে সোহাগ মিয়াকে (২৬) গ্রেফতার করে শ্রীবরদী থানা পুলিশ। গ্রেফতারের পর তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী খামারপাড়া এলাকার নিজ বাড়ির গোয়াল ঘরের পিছনের পরিত্যাক্ত স্থানে তল্লাশী চালিয়ে একটি বিদেশী পিস্তল, ৪ রাউন্ড গুলি এবং একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় জেলা পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীমসহ পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রুহুল আমিন তালুকদার জানান, এ ঘটনায় হত্যাচেষ্টা ও অস্ত্র আইনে সোহাগের বিরুদ্ধে পৃথক দু’টি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

এমএস/এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি