ঢাকা, সোমবার   ১৪ অক্টোবর ২০১৯, || আশ্বিন ২৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

শ্রীমঙ্গলে সাইক্লিং ও রানিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২১:৪৩ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

“মাদকবিরোধী ও পরিবেশ রক্ষায় সোচ্চার হই” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে প্রথমবারের মতো মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ডুয়াথলন রেস(সাইক্লিং ও রানিং)। 

'ডুয়াথলন শ্রীমঙ্গল চ্যালেঞ্জ ২০১৯' নামের সাইক্লিং ও রানিং প্রতিযোগীতায় অংশ নিয়েছেন দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত মোট ২৩৬ জন সাইক্লিস্ট। এদের মাঝে ছিলেন বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ২৪জন নারী সাইক্লিস্ট।

আয়োজক জালাল উদ্দিন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও লন্ডনস্থ বিসিএর সভাপতি মো. কামরুজ জামান জুয়েল জানান, প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ান হয়েছেন রংপুরের রকিবুল ইসলাম এবং রানার আপ হয়েছেন গোপালগঞ্জের তাম্মাদবিন ফয়েজ ও তৃতীয় শ্রীমঙ্গলের মনসুর রহমান।

শুক্রবার বিকেল ৩টায় শ্রীমঙ্গল জেলাপরিষদ ডাকবাংলো প্রাঙ্গণে এর উদ্বোধন করেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম। 

উৎসবমুখর পরিবেশে শহরের শ্রীমঙ্গল-লাউয়াছড়া সড়ক হয়েমোট ২২ কিলোমিটার ব্যাপী এই ডুয়াথলন প্রতিযোগীতারা স্থানীয় আশিদ্রোন ইউনিয়নের টিকরিয়া বাজার এবং  কালিঘাট চা বাগান ঘুরে পুনরায় জেলা পরিষদ ডাকবাংলো প্রাঙ্গনে এসে সাইক্লিং প্রতিযোগীতা শেষ করেন। 

প্রথমবারের মতো ‘ডুয়াথলন শ্রীমঙ্গল চ্যালেঞ্জ ২০১৯ প্রতিযোগীতায় ২৪জন নারী প্রতিযোগীসহ ঢাকা বিভাগ থেকে ৪৬জন, সিলেট জেলা ৮৯জন, চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে ৬জন, মৌলভীবাজার জেলা থেকে ৪৫ জন, হবিগঞ্জ জেলা থেকে ৬জন ও স্বাগতিক ভেন্যু শ্রীমঙ্গল থেকে ৪৪জনসহ মোট ২৩৬জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করছেন। 

আয়োজক জালাল উদ্দিন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও লন্ডনস্থ বিসিএর সভাপতি মো. কামরুজ জামান জুয়েল আরো জানান, মূলত খেলাধুলার মাধ্যমে আমাদের আগামী প্রজন্মকে বিশেষ করে তরুণ সমাজকে মাদক দ্রব্যের বিরোদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টি ও পরিবেশ রক্ষার সচেতনতার জন্য এ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়েছে। 

অপরদিকে প্রতিযোগীতায় অংশ নেয়া বিয়ানীবাজারের মিজান আলী, শাওন আহমদ, মাহিন, ওয়াসিম আক্রাম জানিয়েছেন অন্যান্য খেলাধুলার মতো সাইক্লিংকে প্রত্যন্ত এলাকায় জনপ্রিয় করে তুলতে এবং মাদকমুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষ্যে তাদের এই অংশগ্রহণ। তারা জানান, শ্রীমঙ্গলের এই প্রাকৃতিক পরিবেশে সাইকেলিং রেইসের একটি সড়ক নির্মানের। রাস্তায় জানজট ও সরু থাকার পরও তারা এই রেইসে আনন্দ উপভোগ করেছেন। 

এদিকে ডুয়াথলনের মতো ভিন্ন ধরনের এই প্রতিযোগীতা দেখতে বিপুল সংখ্যক ক্রীড়ামোদী দুপুর থেকে জড়ো হন পৌরসভা ও জেলা পরিষদ ডাকবাংলো প্রাঙ্গণসহ রাস্তার বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে। 

তবে আগত সাইকেলিস্ট মিজান আহমদ জানান,ব্যবস্থাপনা কিছুটা অগোছালো ছিলো।রেইসের রাস্তায় রেলক্রসিং ছিলো।ট্রেনের কারণে তারা বাঁধাগ্রস্থ হয়েছেন।এটি বাদ দিয়ে বিকল্প রাস্তা নিধারণ করা উচিৎ ছিলো।তবে অভিযোগ মাথায় নিয়ে আয়োজক কামরুজ জামান জুয়েল জানান, এটি প্রথমবার তারা আয়োজন করেছেন। ভূল সংশোধন করে ভবিষতে আরও ভালো আয়োজনের আশা প্রকাশ করেন। 
কেআই/
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি