ঢাকা, শনিবার   ৩১ অক্টোবর ২০২০, || কার্তিক ১৬ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

সরিয়ে ফেলা হচ্ছে পরিত্যাক্ত বিমান (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৩:০৬ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার্গো ভিলেজে গলার কাটা হয়ে পড়ে থাকা উড়োজাহাজগুলো সরিয়ে ফেলা হচ্ছে। তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ কাজে বিঘ্ন হওয়ায় এই উদ্যোগ বলে জানিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। চার্জ পরিশোধ না করে বিমান সংস্থাগুলো উড়োজাহাজগুলো ফিরিয়ে না নিলে নিলাম করা হবে বলে জানিয়েছেন বেবিচক চেয়ারম্যান। 

দীর্ঘদিন ধরেই বিমান পরিচালনা করছে না জিএমজি, ইউনাইটেড, অ্যাভিয়েনাসহ বেশ কিছু এয়ারলাইন্স। তাদের পরিত্যক্ত উড়োজাহাজগুলো দীর্ঘদিন পড়ে আছে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ের পাশে। পার্কিং চার্জ বাবদ তাদের কাছে পাওনা জমতে জমতে নেহাত কম হয়নি। দীর্ঘদিন টাকা পরিশোধ না করায় উড়োজাহাজগুলো সরিয়ে নিচ্ছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। 

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান জানান, জায়গা দখল করে থাকা পরিত্যক্ত বিমানগুলো তৃতীয় টার্মিনালের কাজে বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। 

মফিদুর রহমান বলেন, এক্সপোর্ট-ইমপোর্টের কার্গো টার্মিনালের জন্য এই জায়গাটা আমাদের জন্য জরুরি। তাই আমরা আপাতত বিমানগুলো অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।

এরই মধ্যে পরিত্যক্ত ১২টি বিমানের মধ্যে ৯টি সরানো হয়েছে। দীর্ঘদিন পার্কিং চার্জ না দেয়ায় বড় অংকের পাওনা আছে বন্ধ হয়ে যাওয়া এয়ারলাইন্সগুলোর কাছে।

এ সম্পর্কে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান বলেন, সংস্থাগুলোকে ইতিমধ্যে জানিয়েছি। তারা যদি সরিয়ে না নেয় তাহলে এই বিমানগুলো বাজেয়াপ্ত করবো। বাজেয়াপ্ত করার পর হয়তোবা অকেজোগুলোকে ধ্বংস করে ফেলবো, না হয় অকশন করে ফেলবো।

ফি পরিশোধ না করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।

এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান বলেন, যে সংস্থাগুলো এখানে বিমান রেখে দিয়েছে তাদের কাছে সিভিল এভিয়েশনের পাওনা আছে। সেটার জন্য আমরা আইনানুগভাবে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

এএইচ/এমবি


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি