ঢাকা, মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০, || শ্রাবণ ২৭ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

সিঙ্গাপুরে ক্ষমতাসীন দলের নিরঙ্কুশ জয়

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:১৪ ১১ জুলাই ২০২০

সিঙ্গাপুরের ১৩তম জাতীয় নির্বাচনে নিরঙ্কুস সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে ক্ষমতাসীন পিপল’স অ্যাকশন পার্টি (পিএপি)। শুক্রবার অনুষ্ঠিত এ নির্বাচনে পিএপি সংসদের ৯৩টি আসন পেয়ে পুনরায় ক্ষমতায়। অন্যদিকে ওয়ার্কার্স পার্টি (ডব্লিউপি) পেয়েছে মাত্র ১০টি আসন। খবর নিউজ এশিয়ার।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র সিঙ্গাপুরে গত ৬০ বছর ধরে ক্ষমতায় পিপল’স অ্যাকশন পার্টি। এই দলটি আবারও জয় পেয়েছে। কার্যত দেশটিতে একদলীয় শাসনব্যবস্থাই চালু রইল।

করোনাভাইরাসের মধ্যেও উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে ভোট দিয়েছে সিঙ্গাপুরের জনগণ। দেশটির ইতিহাসে এই প্রথম ভোটের সময় ২ ঘণ্টা বাড়ানো হয়।

জানা যায়, সন্ধ্যা পর্যন্ত বিভিন্ন কেন্দ্রের বাইরে ভোটারদের ভীড় ছিলো। সে কারণে ভোট দেওয়ার সময় ২ ঘণ্টা বাড়ানো হয়। ভোটগ্রহণ শেষ হয় রাত ১০টায়। এরপর গণনার কাজ শুরু হয়। 

গণনা শেষে দেখা যায়, ওয়ার্কার্স পার্টিকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে ক্ষমতায় টিকে যায় পিপল’স অ্যাকশন পার্টি। এই দলটি ১৯৫৯ সাল থেকে ক্ষমতায় রয়েছে। ১৩তম সাধারণ নির্বাচনে তাদের পক্ষে ৬১ শতাংশ ভোট পড়ে। যা ২০১১ সালের পর সর্বনিম্ন। সেবার পড়েছিল মাত্র ৬০ শতাংশ ভোট।

ভোট গণনা শেষে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সেইন লুং বলেন, ‘আমরা নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছি। জনগণের সমর্থন পেয়েছি। যদিও পপুলার ভোটের শতাংশ খুব একটা বেশি না।’

এদিকে বিরোধী দল বিশাল ব্যবধানে হারলেও তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ আসন পেয়েছে। আগের সাধারণ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টি পেয়েছিল মাত্র ৬টি আসন। এবার পেয়েছে ১০টি আসন। যা সিঙ্গাপুরে ১৯৬৮ সালে নির্বাচন শুরু হওয়ার পর তাদের পাওয়া সর্বোচ্চ আসন।

তবে সিঙ্গাপুরের সরকার সবসময়েই একটি স্বচ্ছ, দুর্নীতিমুক্ত সরকার হিসেবে বহির্বিশ্বে পরিচিত। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের মতে সিঙ্গাপুর বহুদিন ধরেই এশিয়ার সবচেয়ে দুর্নীতিমুক্ত দেশ।
এএইচ/এসএ/
 


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি