ঢাকা, মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯, || কার্তিক ২৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

সুগন্ধা নদীতে নির্মিত হচ্ছে নলছিটিবাসীর স্বপ্নের সেতু

নলছিটি (ঝালকাঠি) সংবাদদাতা

প্রকাশিত : ১৯:৪৮ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার সুগন্ধা নদীতে নলছিটিবাসীর দীর্ঘদিনের কাঙ্ক্ষিত সেতুটি নির্মিত হচ্ছে। এ জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাবনাও পাঠানো হয়েছে। উপজেলার ভৈরবপাশা ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সামনে থেকে সুগন্ধা নদীর নলছিটি পৌরসভার মাটিভাঙা পয়েন্টে এ সেতু নির্মানের পরিকল্পনা  রোডম্যাপ চুড়ান্ত করা হয়েছে বলে জানা যায়।

জানা গেছে, উত্তমাবাদ-মাটিভাঙা সড়কে সুগন্ধা নদীতে গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের লক্ষ্যে জমি অধিগ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের পল্লী সড়কে গুরুত্বপূর্ণ সেতু নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্প (সিআইবিআরআর) এর প্রকল্প পরিচালক কাছে ঝালকাঠির স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এ প্রস্তাবনা করেছে । চলতি মাসে ১ তারিখে ঝালকাঠির স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে নির্বাহী প্রকৌশলী রুহুল আমীন স্বাক্ষরিত এক প্রস্তাবনা প্রেরণ করা হয়েছে। 

প্রস্তাবনা পত্রে উল্লেখ করা হয়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর অধীনে পল্লী সড়কে গুরুত্বপূর্ণ সেতু নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের (সিআইবিআরআর) আওতায় ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার বরিশাল-ঝালকাঠি মহাসড়কে ভৈরবপাশা ইউপি ভবন সামনে থেকে, উত্তমাবাদ ও  মালিপুর মৌজা থেকে ভূমি অধিগ্রহণের জন্য ২ কোটি ৪৭ লাখ ৬৯ হাজার ১৭৮ টাকা প্রাক্কলন ব্যায় ধরা হয়েছে।

এদিকে সুগন্ধা নদীতে একটি ব্রিজ নির্মানের সিদ্ধান্ত চুরান্ত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়রা বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাছে মেতে ওঠেছেন। নলছিটিসহ দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি ছিলো এ সেতু নির্মান। সেতুটি নির্মিত হলে উপজেলা শহরের সাথে জেলার দুরত্ব কমার পাশাপাশি এ অঞ্চলের মানুষের জীবনমান্নোয়ন পরিবর্তন আনবে । 

এ বিষয়ে নলছিটি পৌরসভার মেয়র তছলিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘ঝালকাঠি-২ আসনের সংসদ সদস্য আমির হোসেন আমু সেতুটি নির্মানে ঐকান্তিক প্রচেষ্টা অব্যহত রেখেছেন। যার ফলেই অতি দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ সেতু নির্মান হবে এবং নলছিটিসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ এতে উপকৃত হবে।’ 

কুলকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এইচএম আখতারুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের অভিভাবক আমির হোসেন আমু মহোদয় নলছিটি ও ঝালকাঠি শহরের দুরত্ব কমিয়ে আনার জন্য সুগন্ধা নদীতে একটি সেতু নির্মানের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে ভূমি অধিগ্রহণ করার জন্য প্রস্তবনা পাঠানো হয়েছে। আমরা আশা করি দ্রুত এ সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হবে।’ 

এ ব্যাপারে ঝালকাঠির স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে নির্বাহী প্রকৌশলী রুহুল আমীন জানান, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের পল্লী সড়কে গুরুত্বপূর্ণ সেতু নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্প (সিআইবিআরআর) এর প্রকল্প পরিচালক বরাবরে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। বরাদ্দ পেলেই কাজ শুরু হবে বলে জানান এ কর্মকর্তা। 

এমএস/আরকে

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি