ঢাকা, রবিবার   ৩১ মে ২০২০, || জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে করোনায় আক্রান্ত ৩

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৪৯ ৬ এপ্রিল ২০২০

মাদারীপুরের শিবচরে আইসোলেশন থেকে সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফেরা ৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে একজন নারী, অপর দু’জন পুরুষ। তাদেরকে সদর হাসপাতালের আইসোলশন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। 

এর আগে গত ২৭ মার্চ তাদেরকে আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে ছাড়পত্র দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে সেখানে কঠোর পদক্ষেপ নেয় প্রশাসন। এদের সংস্পর্শে আসা ৫০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে। 

এ ঘটনার পর রোববার বিকেলে ওই তিনজনের বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দেয়া হয়। এর আগে দুপুর ১টার দিকে তাদের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভার্তি করা হয়। পরে রাতেই পুরো উপজেলা লকডাউন করা হয়।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, আইসোলেশন ওয়ার্ডে থাকা তিনজন মধ্যে দুজন স্বামী-স্ত্রী। তারা শিবচর উপজেলার পাচ্চর ইউনিয়নের হাজীপুরের বাসিন্দা। অপরজন একই উপজেলার বহেরাতলা ইউনিয়নের ৩২ বছর বয়সী ইতালি প্রবাসী। আইসোলেশন থেকে মুক্ত হওয়ার পর বাড়িতে ফিরলে এ তিনজনসহ ১৬ জনের নমুনা সংগ্রহ শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পক্ষ থেকে আইইডিসিআর এ পাঠালে তাদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ পাওয়া যায়। এরপর দুপুরে তাদের সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে নেয়া হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. শশাঙ্ক ঘোস গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এ তিনজনের মধ্যে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। তাই তাদের পুনরায় আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি তাদের সংস্পর্শে আসা ৫০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।’

মাদারীপুরের সির্ভিল সার্জন মো. সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এক নারীসহ তিনজন দুপুরে হাসপাতালে এসেছে। তাদের  ভালোভাবে চেকআপ করা হবে। প্রয়োজনে আবারও তাদের নমুনা নেয়া হতে পারে।’

জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আইইডিসিআর মাদারীপুরের শিবচরকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা দেয়ায় এ উপজেলার লকডাউনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। সকল যানবাহন বন্ধ থাকবে। জনগণকে ঘরে থাকতে হবে।’

পুলিশ, র‌্যাব, সেনাবাহিনী, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিবচরজুড়ে টহল দিচ্ছে। এর আগে গত ১৮ মার্চ থেকে শিবচর উপজেলার ৪টি এলাকা কনটেইনমেন্ট ঘোষণা করলেও কার্যত উপজেলাজুড়ে অচল রয়েছে।

এআই/


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি