ঢাকা, ২০১৯-০৪-২৪ ৮:১৮:১৮, বুধবার

Ekushey Television Ltd.

স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীসহ প্রেমিকের যাবজ্জীবন

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ০৯:০০ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৯ বুধবার

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পরকিয়ার জের ধরে স্বামীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে স্ত্রী শাপলা খাতুন ও তার প্রেমিক কবিরুল ইসলামকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ১ লাখ টাকা জরিমানাসহ অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ডের আদেশ প্রদান করেছে আদলত।

বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরুণাভ চক্রবর্ত্তী এ রায় ঘোষণা করেন। যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্তরা হলেন, সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার পাঁচনল গ্রামের নিহত নুর মোহাম্মদের স্ত্রী শাপলা খাতুন ও একই গ্রামের মৃত আমিন ঢালীর ছেলে ও শাপলার প্রেমিক কবিরুল ইসলাম।

মামলার বিবরণে জানা যায়, কলারোয়া উপজেলার পাঁচনল গ্রামের নুর মোহাম্মদের স্ত্রীর সাথে কবিরুল ইসলাম পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি জানাজানির হওয়ার এক পর্যায়ে নুর মোহাম্মদ তার স্ত্রীর পরকিয়ায় বাঁধা দেয়। এতে তার স্ত্রী শাপলা ও প্রেমিক কবিরুল ক্ষিপ্ত হয়ে ২০১০ সালের ১৩ ডিসেম্বর রাত ২টার দিকে নুর মোহাম্মদকে ঘুমন্ত অবস্থায় শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

এ ঘটনা নিহত নুর মোহাম্মদের বোন ফরিদা খাতুন বাদী কলারোয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই মেজবাহ উদ্দীন ও জিয়াউর রহমান দীর্ঘ তদন্ত শেষে এ মামলার আসামি শাপলা খাতুন ও তার প্রেমিক কবিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

বুধবার এ মামলায় নিহতের দুই ছেলে মোস্তাক আহমেদ ও মোস্তাক হাসানসহ ২১ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে সাতক্ষীরা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরুণাভ চক্রবর্তী স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রী শাপলা খাতুন ও তার প্রেমিক কবিরুল ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ১ লাখ টাকা জরিমানাসহ অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ড প্রদানের আদেশ দেন।

এ মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি ও সাতক্ষীরা জজ কোর্টের এপিপি এ্যাডভোকেট ফাহিমুল হক কিসলু এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান-রায় ঘোষনার সময় আসামীরা সকলেই পলাতক ছিলেন।

কেআই/

ফটো গ্যালারি



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি