ঢাকা, শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

হিলিতে ব্যবসায়ীকে অপহরণের দেড়ঘন্টা পর উদ্ধার, আটক ১

হিলি প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২২:৫৪ ১৪ অক্টোবর ২০১৯

দিনাজপুরের হিলিতে আহসান হাবিব(২৮) নামের এক মবিল ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে একলাখ টাকা মুক্তিপণ দাবির দেড় ঘন্টা পর অপহৃতকে উদ্ধার করেছে হাকিমপুর থানা পুলিশ। সেই সঙ্গে মোহন মিয়া (২৮) নামের এক অপহরণকারীকে আটক করেছে পুলিশ। 

রোববার রাত ৮টায় হিলির শেষ সীমানা দক্ষিণবাসুদেবপুরের মহিলা কলেজ সংলগ্ন জনৈক রাজু মারোয়ারীর ইটভাটা থেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ।উদ্ধার হওয়া আহসান হাবিব বগুড়া জেলা সদরের রজাকপুর গ্রামের মমতাজুর রহমানের ছেলে। আটক মোহন মিয়া জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার চেচড়া গ্রামের সানোয়ার হোসেনের ছেলে। সোমবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে দিনাজপুর কারাগারে পাঠানো
হয়েছে।

আহসান হাবিব জানান, আমার বড় ভাই স্মার্ট মবিলের ডিলার, আমি সেই মবিল সেলসম্যান হিসেবে হিলি-জয়পুরহাট এলাকায় মবিল বিক্রি করে থাকি। সেই সুবাদে আটাপাড়ার ভাইবোন অটোজের মালিক রফিকুল ইসলামের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে উঠে। আমার ব্যবহৃত পালসার মটরসাইকেল বিক্রির কথা জানালে গত ১১ অক্টোবর আমাকে ফোন মারফত জানান যে ক্রেতা পাওয়া গেছে।সেই মোতাবেক গতকাল
রোববার বিকেল ৫টার দিকে মটরসাইকেল নিয়ে তার দোকানে আসি।ক্রেতার বিষয়ে খোঁজ নিলে সে পার্শ্ববর্তী মেকার মোহন মিয়া ও জনৈক রফিকুল ইসলামের কাছে পাঠায়। পরে মোহন মোটরসাইকেলসহ আমাকে নিয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হিলির মহিলা কলেজের সামনে নিয়ে আসে। পরে সেখানে মোতালেব নামের অপর ক্রেতার সাথে দেখা করিয়ে দেয়।এরপর সুকৌশলে তারা পার্শ্ববর্তী ইটভাটাই নিয়ে
গিয়ে আমাকে দড়ি দিয়ে বেঁধে মোটরসাইকেলের চাবি কেড়ে নেয় ও মারধর করে একলাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

এ সময় আমার পকেটে থাকা মোবাইল ও মবিল বিক্রির ৫০ হাজার টাকা নিয়ে নেয়।এরপর আরও ৫০ হাজার টাকার জন্য আমার বড় ভাইয়ের নিকট ফোন করে আসতে বলে।পরে ভাইবোন অটোজের মালিক আমার ফোন বন্ধ পেয়ে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে হাকিমপুর থানাকে জানান।

হাকিমপুর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে গতকাল রোববার রাতেই হিলি সীমান্তের শেষ সীমানা মহিলা কলেজ এলাকায় ইটভাটাতে অভিযান চালিয়ে আহসান হাবিবকে উদ্ধারকরা হয়। 

এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে মোহন মিয়াকে আটক করা হয়েছে, তবে এ সময় অন্যরা পালিয়ে যায়। এঘটনায় সে ৪ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
কেআই/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি