ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০১৯, || শ্রাবণ ৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

২০২২ সালেই কর্ণফুলীর বঙ্গবন্ধু টানেলে চলবে গাড়ি (ভিডিও)

প্রকাশিত : ১২:১০ ১৮ এপ্রিল ২০১৯ | আপডেট: ১৪:০০ ১৮ এপ্রিল ২০১৯

২০২২ সালেই চট্টগ্রামের কর্নফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান টানেলে চলবে যানবাহন। এরইমধ্যে টানেলের ৩৬ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। ব্যবসায়ী, শিল্পোদ্যোক্তারা বলছেন, টানেলটি চালু হলে দেশের পর্যটন শিল্পসহ অর্থনীতিতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে।

‘এক নগরী-দুইশহর’ চিনের সাংহাইয়ের আদলে বন্দর নগরী চট্টগ্রামকে গড়ে তুলতেই কর্ণফুলীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মানের উদ্যোগ নেয় সরকার। কর্ণফুলী নদীর মোহনার পাশ ঘেঁষে নদীর দেড়শ ফুট নিচ দিয়ে হবে টানেলটি। ৩ দশমিক ৪ কিলোমিটার লম্বা দুটি টিউবে যানবাহন চলাচলের জন্য থাকবে চার লেনের সড়ক।  টানেলের পূর্ব ও পশ্চিম প্রান্তে নির্মাণ করা হবে ৫ দশমিক তিন পাঁচ কিলোমিটার অ্যাপ্রোচ সড়ক ও ৭২৭ মিটার ওভারব্রিজ। পুরো এলাকায় চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ। 

কক্সবাজারের মাতারবাড়িতে গভীর সমুদ্র বন্দর, কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, এলএনজি স্টেশনসহ জ্বালানিভিত্তিক বিপুলসংখ্যক দেশি-বিদেশি বিনিয়োগে যে শিল্প-কারখানা নির্মাণের কাজ চলছে এসব কর্মযজ্ঞের সাথে টানেলটি গোটা দেশের সাথে যোগাযোগে মূল ভূমিকা রাখবে।

টানেলটির কারণেই চট্টগ্রামকে ঘিরে গড়ে উঠবে ইকোনমিক হাব। পর্যটন শিল্পের বিকাশসহ দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে যোগাযোগ ব্যবস্থার ক্ষেত্রেই ঘটবে বৈপ্লবিক পরিবর্তন।

টানেলের নির্মাণ কাজ শুরুর পর থেকেই নদীর ওপারে দেশি-বিদেশী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এরইমধ্যে বিনিয়োগ শুরু করেছে। দক্ষিণ তীরে দু’টি ইকোনোমিক জোনসহ টানেলকে ঘিরে চলছে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ। যা দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রাকে আরো বেগবান করবে বলে আশা করছেন ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের।

চীনের আর্থিক সহায়তায় ৯ হাজার ৮৮০ কোটি টাকার এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে ঠিকাদারি চায়না কমিউনিকেশনস কন্সট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২২ সালেই গাড়ি চলবে বঙ্গবন্ধু টানেলে। 

বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে :

এসএ/

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি