ঢাকা, বুধবার   ২৮ জুলাই ২০২১, || শ্রাবণ ১২ ১৪২৮

পর্যটকশূন্য কক্সবাজার (ভিডিও)

কক্সবাজার প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১২:১০, ৩ এপ্রিল ২০২১

করোনার সংক্রমণ রোধে নিষেধাজ্ঞা জারি করায় পর্যটকশূন্য হয়ে পড়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার। এপ্রিলের ২ থেকে ১৪ তারিখ পর্যন্ত সমুদ্র সৈকতে পর্যটক ভ্রমণের উপর বিধি-নিষেধ আরোপ করায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তবে জরুরি প্রয়োজনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে হোটেল মোটেলগুলোতে থাকতে পারবেন অতিথিরা।

সারাদেশে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে, বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। ব্যতিক্রম নয় পর্যটন নগরী কক্সবাজারও।

এ অবস্থায় ২ এপ্রিল থেকে সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে প্রশাসন। ফলে সৈকতের লাবণী পয়েন্ট, সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে শুরু করে সব পয়েন্টই এখন পর্যটকশূন্য। সৈকতের দোকানপাটও বন্ধ। ভ্রমণে এসে নিষেধাজ্ঞায় পড়ে হতাশ হলেও সরকারের সিদ্ধান্তকে যথার্থ বলছেন পর্যটকরা।

পর্যটকরা জানান, সরকারের সিদ্ধান্ত ঠিক আছে কিন্তু অনেক আশা নিয়ে এসেছিলাম। বিচে নামবো, ঘোরাঘুড়ি করবো কিন্তু সেটা এখন পারছি না। অনেক দূর থেকে প্রথমবার কক্সবাজার এলাম, কিন্তু এসে দেখি লনডাউন। এখন তো আর কিছু করার নেই। 

এদিকে, বিধি-নিষেধ আরোপের পর সৈকতের প্রবেশদ্বারে বসানো হয়েছে তল্লাশি চৌকি। মাইকিংসহ বিধি-নিষেধ মানাতে কাজ করছে জেলা প্রশাসন ও ট্যুরিস্ট পুলিশ।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের সিনিয়র সহকারী সুপার মিজানুজ্জামান বলেন, একসঙ্গে যাতে চলাচলা না করে সে বিষয়েও আমরা মাইকিং করেছি, জনসচেতনতামূলক কথাবার্তা বলেছি।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আমিন আল পারভেজ বলেন, দেখা যাচ্ছে যে এখানে এতো উপচেপড়া ভীড় হচ্ছে যাতে করে এটা নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। সেজন্য আমরা সাময়িকভাবে এটি বন্ধ ঘোষণা করেছি। যদি পরিস্থিতির উন্নতি ঘটে তখন এটি পর্যটকদের জন্য আবার খুলে দেওয়া হবে।

দেশ-বিদেশের পর্যটক সমাগমে স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়ে; বিষয়টি মাথায় রেখে মাস্ক বিতরণসহ সচেতনতামূলক প্রচারণাও চালাচ্ছে জেলা প্রশাসন।
দেখুন ভিডিও :

এএইচ/এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি