ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১, || কার্তিক ৩ ১৪২৮

১২০ বছরে পা রাখছে গোপীনাথ জিউর মন্দির

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৫:৪৩, ১২ অক্টোবর ২০২০

এবার ১২০ বছরে পা রাখছে কুষ্টিয়ার ঐতিহ্যবাহী শ্রী শ্রী গোপীনাথ জিউর মন্দিরের দুর্গাপূজা। করোনা সংক্রমণের এই সময়ে এবার আয়োজনের অনেকখানি কাটছাঁট করা হয়েছে। তারপরও দুর্গোৎসব ঘিরে জেলার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে উৎসাহের কমতি নেই। সহযোগিতার ঘাটতি নেই সমাজ ও প্রশাসনের।

১৯০০ সালে যশোরের নলডাঙার রাজা প্রমথ ভূষন দেব রায় কুষ্টিয়া শহরের রথখোলায় শ্রী শ্রী গোপীনাথ জিউর মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন। সে বছরই এই মন্দিরে প্রথমবারের মত দুর্গোৎসবের আয়োজন হয়।

প্রতিবছর জেলার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান আকর্ষণ হয়ে উঠে এই মন্দিরের দুর্গোৎসব। উৎসবের জৌলুশ দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে আসে সর্বধর্মের মানুষ। এবার পরিস্থিতি কিছুটা ভিন্ন। করোনার কারণে আয়োজন ছোট।

গোপীনাথ জিউর মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক তরুণ কান্তি চাকী বলেন, করোনার কারণে এবার আমরা সীমিত আকারে এই পূজা পালন করছি, কোন ডেকোরেশন না করে।

হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য তুহিন চাকী বলেন, প্রত্যেকটা মন্দিরকে আমরা জানাবো হাত ধুইয়ে, স্যানিটাইশন ব্যবহার করে ভীড় এড়িয়ে যাতে সুন্দরভাবে পূজা উদযাপন করবেন।

এই মন্দির ছাড়াও শহরের হরিবাসরসহ বেশ কয়েকটি মন্দিরে প্রায় ১০০ বছর ধরে দুর্গাপুজার আয়োজন হয়ে আসছে। এবার মন্দিরে মন্দিরে করোনা মুক্তির প্রার্থনা হবে বলে জানান আয়োজকরা।

আয়োজকরা জানান, ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যে সাধ্যিক মতো পূজা আর্চনা করলে আমরা হয়তো করোনামুক্ত হতে পারবো।

এই শরতে জেলায় পূজা হবে ২৩৭টি মণ্ডপে। স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি, প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এ উৎসবে সার্বিক সহযোগিতা করছে বলে জানান পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা।

আগামী ২২ অক্টোবর ষষ্টী লগ্নে শুরু হবে শারদীয় দুর্গোৎসব।

এএইচ/এমবি


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি