ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, || ফাল্গুন ১২ ১৪২৭

দেশে আর কোনও নিম্নমানের কাজ হবে না: এলজিআরডি মন্ত্রী

গাজীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২২:০১, ২৬ জানুয়ারি ২০২১

গাজীপুরে মানসম্মত এবং টেকসই কাজ করার জন্য ডিজাইন পরিবর্তন করা হয়েছে এবং ‘এস্টিমেট’ বাড়ানো হয়েছে উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার, পল্লী, উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, এতে দেশে আর কোনও নিম্নমানের কাজ হবে না। প্রকৌশলী, ঠিকাদার ও শ্রমিকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কাজের মান নিশ্চিত ও টেকসই করা সম্ভব হবে।

মন্ত্রী মঙ্গলবার গাজীপুরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)’র উদ্যোগে ‘নির্মাণ দক্ষতা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র’র ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা জানান।

তাজুল ইসলাম বলেন, টেকসই নির্মাণ কাজ নিশ্চিত করতে প্রশিক্ষিত প্রকৌশলী, ঠিকাদার এবং শ্রমিক প্রয়োজন। প্রকৌশলীদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা থাকলেও ঠিকাদার এবং শ্রমিকদের প্রাতিষ্ঠানিক কোনও শিক্ষা বা প্রশিক্ষণ থাকে না। সে কারণে কাজের গুণগত মান নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত ও টেকসই করা সম্ভব হয় না। 

তিনি বলেন, প্রশিক্ষণ গ্রহণের পর গ্রাম অঞ্চলের অদক্ষ শ্রমিকের প্রশিক্ষিত করা সম্ভব হবে এবং এলজিইডি’র নির্মিত অবকাঠামোসমূহের গুণগত মান ও স্থায়িত্ব বৃদ্ধির পাশাপাশি কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। 

মন্ত্রী এসময় যে ঠিকাদার সিডিউল মেনে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মানসম্মত ও টেকসই কাজ করবে সেই ঠিকাদারকে আরও বেশি কাজ দেওয়া হবে উল্লেখপূর্বক হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আর যারা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ করতে পারবে না বা নিম্নমানের কাজ করবে তাদেরকে শুধু কালো তালিকাভুক্ত নয়, তাদের বিরুদ্ধে সবধরনের আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ডিজাইনের বাইরে কেউ কোনও কাজ করলে তাকে চিহ্নিত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এলজিইডি ইতোপূর্বে যেসব রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট করেছে, দেশের আর্থিক অবস্থা বিবেচনা করে সেগুলো ‘লো কস্টে’ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম, স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মেজবাহ উদ্দিন, এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশিদ খান এবং এলজিইডির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি