ঢাকা, সোমবার   ২৭ মে ২০২৪

মমেকে বিনাখরচে নবজাতকের উন্নতমানের চিকিৎসা

ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১২:৫০, ১০ অক্টোবর ২০২১

করোনাকালীন নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নবজাতক বিভাগে যথাযথ চিকিৎসা পাচ্ছেন রোগীরা। চিকিৎসদের দাবি, আন্তরিক প্রচেষ্টায় কোভিড আক্রান্ত প্রত্যেকেই সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। কর্তৃপক্ষ বলছে, বিনামূল্যে সব ধরনের চিকিৎসা নিশ্চিত করা বর্তমান সরকারের বড় সাফল্য। 

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নবজাতক বিভাগে এ পর্যন্ত ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত নবজাতককে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। প্রত্যেককেই সুস্থ করে পরিবারের কাছে তুলে দিয়েছেন চিকিৎসকরা। এমনকি নবজাতক ওয়ার্ডে কেউই মারা যায়নি। 

মমেক হাসপাতালের নবজাতক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. মো. নজরুল ইসলাম বলেন, গত জুন মাস এ পর্যন্ত ১৪টি কোভিড আক্রান্ত নবজাতক পেয়েছি। এদেরকে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ্য অবস্থায় বাসায় পাঠাতে পেয়েছি।

২০১৩ সালে ইউনিসেফের সহায়তায় ৫০ শয্যার নবজাতক বিভাগ প্রতিষ্ঠার পর প্রতিদিন গড়ে দুই থেকে আড়াইশ’ শিশু চিকিৎসা নিচ্ছে। শিশু বিভাগে আগে নবজাতক মৃত্যুর হার ছিল ৩৫ শতাংশ, এখন তা নেমে এসেছে ১৫ থেকে ২০ শতাংশে। 

নবজাতক বিভাগের নার্সেস ইনচার্জ শান্তিলতা দ্রোহ বলেন, বাচ্চারা যাতে আরাম পায় সেটা অনুভব করে ওই হিসেবে আমরা সেবা দিয়ে আসছি।

নবজাতক বিভাগের ভেতরেই রয়েছে ব্রেষ্ট ফিডিং কর্ণার। বিনা খরচে উন্নতমানের চিকিৎসাসেবা পেয়ে খুশি সবাই। 

ময়মনসিংহ ছাড়াও আশপাশের কয়েকটি বিভাগের নবজাতকদের এখানে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়। 

মমেক হাসপাতালের পরিচালাক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ফজলুল কবীর বলেন, সর্বধরনের চিকিৎসা সরঞ্জামাদি, ওষুধপত্র থেকে শুরু করে যাবতীয় জিনিস সরকারি সরবরাহের মধ্যে থেকেই আমরা দিচ্ছি। রোগীর স্বজনদের বাইরে থেকে কিছুই কিনতে হচ্ছে না।

২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত এই হাসপাতালে ১ লাখ ৯ হাজার নবজাতককে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়েছে।

ভিডিও-

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.





© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি