ঢাকা, রবিবার   ১৯ মে ২০২৪

গোয়েন্দা কর্মকর্তা পরিচয়ে একাধিক বিয়ে, অবশেষে ধরা

নড়াইল প্রতিনিধি 

প্রকাশিত : ১৯:৫৮, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তা পরিচয়ে অর্থ আত্মসাত ও একাধিক বিয়ের পর অবশেষে পুলিশের হাতে বন্দি হয়েছেন সোহেল রানা (২৪) নামের যুবক।

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে প্রতারণার মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। সোহেল নড়াইল সদর উপজেলার চন্ডিবরপুর ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের অহিদুর মোল্যার ছেলে।

এর আগে গত বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টার দিকে নড়াইল শহরের পুরাতন বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে সোহেলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

নড়াইল সদর থানার এএসআই আনিসুজ্জামান জানান, গ্রেফতারকৃত সোহেল রানা কখনো সেনাসদস্য, কখনো ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফোর্সেস ইন্টেলিজেন্স (ডিজিএফআই), কখনো বা স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের (এসএসএফ) কর্মকর্তা পরিচয় দিতেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এভাবে ভুয়া পরিচয় দিয়ে ইতোমধ্যে দু’টি বিয়ে করেন। 

অনেকের অভিযোগ, সাত থেকে আটটি বিয়ে করেছেন সোহেল। এছাড়া সেনাবাহিনীতে চাকুরি দেয়ার প্রলোভনে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

এদিকে, গত বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) নড়াইল পৌরসভার মহিষখোলা এলাকার বাড়িওয়ালা এক নারীকে ঘর থেকে ডেকে এনে হঠাৎ করে মারধর করেন সোহেল। এ অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে। ওই বাড়িতে এক সময় ভাড়া থাকত সোহেল।

সদর থানার ওসি (চলতি দায়িত্ব) মাহমুদুর রহমান বলেন, প্রতারণা ও বাড়িওয়ালা নারীকে মারধরের ঘটনায় সোহেল রানার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সোহেল কতদিন ধরে প্রতারণা করে আসছেন এবং চাকুরি দেয়ার নামে কতজনের কাছ থেকে কত টাকা আত্মসাত করেছেন, সে ব্যাপারে আরও খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। এছাড়া তার একাধিক বিয়ের বিষয়টিও আমরা শুনেছি।

এসি

 


Ekushey Television Ltd.





© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি