ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪

জুসের সঙ্গে দুই সন্তানকে বিষপান করিয়ে নিজেও খেলেন

নড়াইল প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১০:৩১, ১৯ জানুয়ারি ২০২৩

হাসপাতালে ভর্তি শিশু ইলমা ও রাব্বি

হাসপাতালে ভর্তি শিশু ইলমা ও রাব্বি

স্বামীর নির্যাতন ও দারিদ্রতার জন্য দুই সন্তানসহ আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন এক গৃহবধূ। আশংকাজনক অবস্থায় তিনজনকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরে নড়াইল পৌর এলাকার ভওয়াখালীতে এই ঘটনা ঘটে।

প্রতিবেশিরা জানান, স্বামী মিঠু শেখ তার স্ত্রী শিউলি বেগমের (৩২) তেমন খোঁজখবর রাখেন না। সম্প্রতি স্বামী আরেকটি বিয়ে করায় প্রথম স্ত্রী শিউলি ও তার দুই সন্তানের ভরণপোষণ দিচ্ছিলেন না। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ লেগে থাকত

এরই জের ধরে বধুবার সকালে মিঠু তার স্ত্রী শিউলিকে বেদম মারধর করেন। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে দুই সন্তানসহ মা শিউলি বেগম বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। জুসের সঙ্গে প্রথমে দুই সন্তানকে বিষপান করিয়ে পরে নিজে বিষপান করেন। 

মিঠুর গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরা জেলায়। তিনি নড়াইল শহরে হোটেলে কাজ করেন। আর স্ত্রী শিউলির বাবার বাড়ি নরসিংদি জেলায়। 

এ ঘটনার পর দ্বিতীয় স্ত্রীসহ মিঠু পলাতক রয়েছেন।

ভাড়াটিয়া প্রতিবেশিরা আরও জানান, ভওয়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী শিশু সন্তান রাব্বিকে (৭) স্কুল থেকে ডেকে এনে মা শিউলি বেগম তাকে এবং ছোট বোন ইলমাকে (৪) জুসের সঙ্গে বিষপান করান। 

আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রতিবেশিরা তাদের উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এর মধ্যে বুধবার বিকেল পর্যন্ত ছেলে রাব্বির জ্ঞান ফিরলেও বোন ইলমা ও মায়ের জ্ঞান ফেরেনি।

প্রতিবেশিসহ বিভিন্ন পেশার মানুষরা জানান, কোনো কারণ ছাড়া প্রায়ই স্ত্রী শিউলিকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায় স্বামী মিঠু শেখ। এছাড়া সন্তানদের দেখভালসহ সংসারের ভরণপোষণও দিতে চায় না। এমন অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় মিঠুর যথাযথ শাস্তি দাবি করেন প্রতিবেশিরা।

এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি মাহমুদুর রহমানের সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি সাড়া দেননি।

এএইচ


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি