ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪

নির্বাচনের দেড় বছর পর পুনরায় ভোট গণনা!

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১০:২০, ১১ মে ২০২৩

বাদী মো. আলী খোকন ও বিবাদী আহম্মদ আলী হাওলাদার। বাদী-বিবাদী সম্পর্কে মামা-ভাগনে।

বাদী মো. আলী খোকন ও বিবাদী আহম্মদ আলী হাওলাদার। বাদী-বিবাদী সম্পর্কে মামা-ভাগনে।

লক্ষ্মীপুরের একটি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য পদে ভোটের ফলাফল নিয়ে চ্যালেঞ্জ করেছেন এক প্রার্থী। আদালতে মামলা পর্যন্ত করেছেন তিনি। মামলার বাদী-বিবাদী সম্পর্কে মামা-ভাগনে।

দায়েরকৃত মামলাটি এখন বিচারাধীন রয়েছে। তবে এরই মধ্যে আদালতে দুইবার ব্যালট পেপার গণনা করা হয়েছে। এতে মামা আহম্মদ আলী হাওলাদারের চেয়ে ভাগনে মো. আলী খোকনের ভোট বেড়েছে। যদিও নির্বাচন কমিশনের গেজেট প্রকাশের পর শপথ নিয়ে ওই ওয়ার্ডের সদস্য পদে আহম্মদ আলী হাওলাদার দায়িত্ব পালন করে আসছেন।  

লক্ষ্মীপুর ইউপি নির্বাচন ট্রাইব্যুনাল কোর্টে আহম্মদ আলী হাওলাদারকে বিবাদী করে মামলাটি দায়ের করেছেন বাদী মো. আলী খোকন।

মামলার বাদী মো. আলী খোকন এবং তার আইনজীবী হারুনুর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

আইনজীবী হারুনুর রশিদ বলেন, বাদী মো. আলী খোকন টিউবওয়েল প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তার অভিযোগ ছিল- টিউবওয়েল প্রতীকে সিলমারা ব্যালট পেপার মোরগ প্রতীকের ব্যালটের সঙ্গে গগণা করা হয়েছে। এতে টিউবওয়েল প্রতীকের প্রার্থীর ভোট কমে গিয়ে মোরগ প্রতীকের প্রার্থীর ভোট বেড়ে গেছে।

পরে ব্যালট পেপার পুনঃগণনা এবং ন্যায় বিচারের জন্য বাদী মো.আলী খোকন আদালতের দ্বারস্থ হন।  

জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চর রমনী মোহন ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ৫ জন। এদের মধ্যে কেন্দ্র ঘোষিত ফলাফলে আহম্মদ আলী হাওলাদারকে মোরগ প্রতীকে ৩৪২ ভোটে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। সেই ফলাফল অনুযায়ী তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মো. আলী খোকন। টিউবওয়েল প্রতীকে তার ভোট দেখানো হয়েছে ৩৩০।

তবে শুরু থেকেই মোহাম্মদ আলী খোকন ওই নির্বাচনের ভোট গণনায় কারচুপির অভিযোগ করেন। ভোটের ফলাফলের পরপরই তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তা, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।  

পরে নির্বাচনের গেজেট প্রকাশিত হওয়ার পর ২০২২ সালের ১৬ জানুয়ারি ওই কেন্দ্রের ইউপি সদস্যদের ভোট পুনঃগণনার নির্দেশ চেয়ে ইউপি নির্বাচন ট্রাইব্যুনাল লক্ষ্মীপুর আদালতে একটি মামলা (৪/২০২২) দায়ের করেন। মামলায় চর রমনী মোহন ইউনিয়নের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা দেবেশ কুমার সিংহসহ ৫ জনকে বিবাদী করা হয়। মামলার শুনানি শেষে আদালত ২০২২ সালের ২৭ মার্চ উক্ত কেন্দ্রের ব্যালট পেপার তলব করেন।  

মামলার বাদী মোহাম্মদ আলী খোকন অভিযোগ করে জানান, মামলা দায়েরের পর থেকে ১ নম্বর আসামি আহাম্মদ আলী হাওলাদার সময় ক্ষেপণের অজুহাত তৈরি করেন। তিনি মিথ্যা তথ্য দিয়ে আদালতে ৭ বার সময় প্রার্থনা করে আদালতে অনুপস্থিত থাকেন। পক্ষান্তরে বাদী প্রতিটি ধার্য তারিখে আদালতে উপস্থিত থাকতেন।  

এর মাঝে এ মামলার কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে গেল ৭ মার্চ বিবাদী একটি রিভিশন মামলা (৫/২০২২) দায়ের করেন। তবে আদালত এপ্রিল মাসে উক্ত রিভিশন খারিজ করে দেন।

বাদীর আইনজীবী হারুনুর রশিদ জানান, ভোটগণনার তারিখ নির্ধারণ করলেই বিবাদী সময় চেয়ে আদালতে আবেদন করে। পরে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি আদালত তার আইনজীবীর উপস্থিতিতে পুনরায় ভোট গণনা করে। এতে কেন্দ্র ঘোষিত ফলাফলের চেয়েও বাদী মো. আলী খোকনের টিউবওয়েল প্রতীকে ভোট বাড়ে।

তিনি জানান, গত ৬ মার্চ বিবাদী আদালতে গণনাকৃত ভোটে আবারও গণনার জন্য আবেদন করেন। সর্বশেষ গত ৩ মে দুই পক্ষ এবং আইনজীবীদের উপস্থিতিতে আদালত চর রমনী মোহন ইউনিয়নের ১ নম্বর কেন্দ্রের ভোট গণনা করেন। এতে বাদীর টিউবওয়েল প্রতীকে আরও ভোট বেড়েছে।

আইনজীবী হারুনুর রশিদ বলেন, এখন আমরা আদালতের রায়ের অপেক্ষায় আছি।

এএইচ


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted







© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি