ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ জুলাই ২০২১, || শ্রাবণ ১৩ ১৪২৮

নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের আগুনে মায়ের পর ছেলের মৃত্যু

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:১৮, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে গ্যাসের চুলার আগুনে একই পরিবারের শিশুসহ আটজন দগ্ধ হওয়ার ঘটনায় মা নুরজাহানের (৬০) পর এবার ছেলেও চলে গেলেন। 

সোমবার দিনগত রাতে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটের চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুরজাহানের ছেলে কিরণ মিয়া (৪৫) মারা যান। তার শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। 

ঢামেক পুলিশ বক্সের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া গণমাধ্যমকে কিরণের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এর আগে ঘটনার দিন সোমবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে দগ্ধ আটজনের মধ্যে নুরজাহান (৬০) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার শরীরের প্রায় পুরোটাই ঝলসে গিয়েছিল। এই নিয়ে এ ঘটনায় ২ জনের মৃত্যু হল। 

বাকিরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে এখনো ২/৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

এর আগে সোমবার ভোর ৫টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জের সাহেবপাড়া এলাকায় গ্যাসের আগুনে দগ্ধ হওয়ার এ ঘটনা ঘটে। এতে একই পরিবারের আটজন দগ্ধ হন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন, হীরণ (২৫) ও তার স্ত্রী মুক্তা (২০) মেয়ে লিমা (৩), আবুল হোসেন (২২), কাওসার (১৬) এবং আপন (১০)।

নূরজাহান বেগমের মেয়ে জামাই ইলিয়াছ মিয়া জানান, ‘তাদের বাড়ি নরসিংদীর শিবপুর উপজেলায়। পরিবারটি বর্তমানে সাইনবোর্ড সাহেবপাড়া এলাকায় একটি বাড়ির পাঁচতলা ভবনে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিলেন। রোববার রাতে ওই এলাকায় গ্যাসের চাপ কম ছিল, ফলে চুলা বন্ধ না করেই ঘুমিয়ে পড়েন পরিবারের সদস্যরা। ভোরে রান্নার জন্য আগুন ধরাতেই বিকট শব্দে পুরো বাড়িতে আগুন ধরে যায়। সেই আগুনে আটজন দগ্ধ হয়। পরে তাদের দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।’

এআই/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি