ঢাকা, রবিবার   ১৪ জুলাই ২০২৪

পরিবারের ৭ সদস্য সহ পা হারানো ইয়াকুবের মানবেতর জীবন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৯:৫৯, ৬ মে ২০২০

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার মিরাশী ইউনিয়নের সাত্তালিয়া গ্রামের ইদ্রিছ আলীর পুত্র ইয়াকুব আলীর (২০) গত বছর এক সড়ক দূর্ঘটনায় তার বাম পা ভেঙ্গে যায়। অপারেশন করার পর তিনি বর্তমানে বাড়িতে অবস্থান করছেন। ইয়াকুব আলী পরিবারের বড় ছেলে। তার ছোট এক ভাই এবং দুই বোন রয়েছে।  

তার পরিবারের মোট সদস্য সংখ্যা ০৭ জন। ইয়াকুব আলীর পিতা একজন দিনমজুর। ইয়াকুব আলী ২০১৮ সালে দাখিল পরীক্ষায় পাশ করার পর পড়ালেখার পাশাপাশি পরিবারের আর্থিক স্বচ্ছলতার জন্য চট্টগ্রামে কাজে যোগ দেন। সেখান থেকে বাড়িতে ফেরার পথে গত বছর কুমিল্লায় এক সড়ক দূর্ঘটনায় তার বাম পা ভেঙ্গে যায়। অসহায় পরিবারের পক্ষে ইয়াকুব আলীর চিকিৎসার খরচ যোগাতে অনেকটা হিমশিম খেতে হচ্ছে। করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ দেড় মাস সারা দেশ লকডাউন থাকায় ইয়াকুব আলীর পিতা কোন কাজকর্ম করতে পারছেন না। যার দরুন ইয়াকুব আলীর পরিবারটি বর্তমানে অনাহারে অর্ধাহারে দিনাতিপাত করছে। মানুষের ধারে ধারে ঘুরেও কোন ত্রাণ কিংবা সহায়তা পাচ্ছেন না। 

এ ব্যাপারে ইয়াকুব আলীর পিতা ইদ্রিছ আলী জানান, তিনি ত্রাণের জন্য মিরাশী ইউপি চেয়ারম্যান, ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার সুরুজ আলী সহ সম্ভাব্য ত্রাণ বিতরণ স্থলে গিয়েও তাদের কাছ থেকে কোন ত্রাণ পান নি। অন্যদিকে কিছুদিন পূর্বে ইয়াকুব আলীর পায়ের রড খোলা হয়েছে। ডাক্তার বলেছে যথাশীঘ্র পায়ে আরেকটি অপারেশন করাতে হবে। ইয়াকুব আলীর পরিবার চুনারুঘাট উপজেলা প্রশাসন সহ সকলের সাহায্য-সহযোগিতা কামনা করেছে। 

প্রয়োজনে- ০১৩০৮-৯৭৭৯৮৪ (ইয়াকুব)
বিকাশ পারসোনাল (০১৭২৭-৬৩১৩৬১)

আরকে/


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted







© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি