ঢাকা, বুধবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

দোহারে করোনা আক্রান্ত নারীর মৃত্যু

দোহার-নবাবগঞ্জ (ঢাকা) সংবাদদাতা

প্রকাশিত : ১৯:২৬, ১৩ মে ২০২০

দোহার-নবাবগঞ্জ ম্যাপ

দোহার-নবাবগঞ্জ ম্যাপ

ঢাকার দোহারে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া লটাখোলার এক নারী মৃত্যুবরণ করেছেন। বুধবার (১৩ মে) দুপুর ১২টার দিকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। করোনায় আক্রান্ত ওই নারী দীর্ঘদিন ধরে কিডনিজনিত রোগে ভুগছিলেন। সপ্তাহে দুইবার ঢাকা গিয়ে ডায়ালাইসিস করাতে হতো। 

আক্রান্ত ওই নারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জসিম উদ্দিন জানান, মঙ্গলবার রাতে লটাখোলা এলাকার ওই নারীর করোনা পজিটিভের বিষয়টি আমরা নিশ্চিত হই। তার কিডনিজনিত সমস্যা ছিল এবং নিয়মিত ডায়ালাইসিস করাতে হতো। ডায়ালাইসিস ও করোনার চিকিৎসা যাতে একসাথে হয় সে বিষয়টি মাথায় নিয়ে আমরা বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লটাখোলার বাড়ি থেকে তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে পাঠিয়ে দেই। অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকা নেয়ার পথে টিকরপুর নামক স্থানে তার মৃত্যু হয়।

ডা. জসিম উদ্দিন আরও জানান, মৃত ওই নারীর লাশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রশিক্ষিত কর্মীরা প্যাকেটিংসহ সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া করে দেবেন। যেহেতু মৃত নারী হিন্দু সম্প্রদারের, সেহেতু তার পরিবার চাইলে প্রক্রিয়ার তিন ঘন্টা পর ধর্মীয় মতে কার্য সম্পাদন করতে পারবেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে লটাখোলা এক্সিম ও যমুনা ব্যাংক সংলগ্ন করোনা আক্রান্ত ওই নারীর বাড়িসহ ১০টি বাড়ি এবং পার্শ্ববর্তী সড়কের ৭টি দোকান লকডাউন করেছে প্রশাসন। সকালে ঘটনাস্থলে আসেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জসিম উদ্দিনসহ দোহার থানা পুলিশের সদস্যরা।

নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র জানান, আক্রান্ত ওই নারী যে বাড়িতে বসবাস করেন সে এলাকা ঘনবসতিপূর্ণ হওয়ায় ১০টি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। একইসাথে পাশের সড়কের ৭টি দোকান লকডাউন করা হয়েছে। তিনি জানান, রোগীর পরিবার ও তার সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। অচিরেই তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। বাড়ি ও আশপাশের মানুষকে সতর্ক করতে এলাকায় লাল পতাকা টানানো হয়েছে।

মৃত নারীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ওই নারী দীর্ঘদিন ধরে কিডনি রোগে ভুগছেন। ডায়ালাইসিস করাতে সপ্তাহে দুইদিন ঢাকা যেতে হত তাকে। মঙ্গলবার (১২ মে) ঢাকায় ডায়ালাইসিস করাতে গেলে চিকিৎসক ওই নারীর শরীরে করোনা উপসর্গ দেখে তাকে করোনা পরীক্ষার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল (পিজি হাসপাতালে) পাঠান। রাত ১২টার দিকে তার মোবাইলে আসা ক্ষুদে বার্তার মাধ্যমে জানতে পারেন করোনা পজিটিভের বিষয়টি। তাৎক্ষণিকভাবে আক্রান্ত ওই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি অবগত করা হয় স্থানীয় প্রশাসনকে।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি