ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ জুলাই ২০২১, || শ্রাবণ ১১ ১৪২৮

চলনবিলের জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে (ভিডিও)

নাটোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১২:২৭, ১০ নভেম্বর ২০২০

নাটোরের চলনবিলে অবাধে চলছে শামুক, ঝিনুক ও কাঁকড়া নিধন। প্রতিদিন বিপুল পরিমাণ শামুক ঝিনুক সংগ্রহ করে তা পাঠানো হচ্ছে সীমান্ত এলাকায়। এতে করে চলনবিলের জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়ছে বলে জানিয়েছেন পরিবেশবিদরা।

নাটোরের সিংড়ায় চলছে শামুক, ঝিনুক ও কাঁকড়া ধরার অভিযান। দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ, রানীশংকৈল, পঞ্চগড়ের তেতুঁলিয়া-সহ বিভিন্ন এলাকার আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষ ধরছে এসব শামুক, ঝিনুক ও কাঁকড়া। পরে পাঠানো হচ্ছে সীমান্ত এলাকায়। 

এলাকাবাসীরা জানান, আলু যেমন সারাবছর ব্যবহার করে আমরা এটাকে তরকারি হিসেবে সারাবছর ব্যবহার করি। অন্য আরেকজন জানান, এগুলো শুকিয়ে কেউ কেউ ব্যবসার জন্য চট্টগ্রাম, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও শান্তাহারে পাঠিয়ে থাকে।

পরিবেশবাদী সংগঠনসহ এলাকার মানুষ বলছেন, পাচারের উদ্দেশ্যে এসব শামুক, ঝিনুক ও কাঁকড়া নিধন চলছে। চলনবিলের জীববৈচিত্র্য রক্ষায় দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ারও দাবি তাদের। 

স্থানীয় সমাজসেবক, পরিবেশ কর্মী এবং চলনবিল জীববৈচিত্র্য রক্ষা কমিটি বলছে, আমাদের ধারণা তারা খাওয়ার কথা বললেও আসলে তা ভারতে পাচার হচ্ছে। শামুকসহ কাঁকড়-বাকর চলনবিলে যে কীট-পতঙ্গ আরও যা কিছু আছে এগুলো যেন রক্ষা করা হয়।

এদিকে, শামুক-ঝিনুক-কাঁকড়া নিধন বন্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

সিংড়া পৌরসভার মেয়র বলেন, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। আমরা জীববৈচিত্র্য রক্ষা কমিটি, যারা আচরণবিধি রক্ষা করার দায়িত্ব নিয়েছে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে এবং প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে আইনী ব্যবস্থা নিব।

নাটোর সিংড়া উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোঃ রকিবুল ইসলাম বলেন, খুব শীঘ্রই এদেরকে সরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা নেবো। যাতে করে আমাদের সিংড়ার চলনবিল অঞ্চলের জীববৈচিত্র্য সঠিকভাবে রক্ষা হয়।


এএইচ/ এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি