ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৫ আগস্ট ২০২১, || শ্রাবণ ২০ ১৪২৮

পরিবহন সংকট নিরসনে সময় বেঁধে দিলো জাককানইবি শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত : ১৯:১৮, ১১ এপ্রিল ২০১৯

পরিবহন সংকট নিরসন ও ভাড়া বাসের পরিবর্তে নিজস্ব বাসের দাবিতে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাককানইবি) অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। আগামী রমজানের ছুটি পরবর্তী মাসের মধ্যে পুরো পরিবহণ সমস্যা সমাধান না হলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) বেলা ১টায় পরিবহন সংকট নিরসনে অবস্থান কর্মসূচীতে যাওয়া শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে এক নম্বর গেইটে এসে জড়ো হয়। এসময় গেটের সামনে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা নিজস্ব বাসের দাবিতে নানা স্লোগান ধরে আন্দোলন করতে থাকে।

এতে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্বতা প্রকাশ করে। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর উজ্জ্বল কুমার প্রধান সহ অন্যান্য সহকারী প্রক্টরগণ শিক্ষার্থীদের বুঝানোর চেষ্টা করেন।

বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানান, প্রশাসন শুধু আশ্বাস দেয়, কোন ধরনের পদক্ষেপ নেয় না। গত মাসেও শিক্ষার্থীরা বাসের জন্য পরিবহণ প্রশাসকের অফিসে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছিল, তখনও আশ্বাস দেয়া হয়েছিল বাস বাড়াবে। আশ্বাসের পর আশ্বাস আসছে কিন্তু বাসের কোন খবর নেই। আমরা কষ্ট করে গাদাগাদি করে যাতায়াত করছি। আমাদের এখন দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে, ধৈর্যের সীমা অতিক্রম করেছে, দ্রুত বিষয়টির সমাধান না করলে আমরা কঠোর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হব।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের জন্য বরাদ্ধকৃত টাকা দিয়ে উনারা নিজেদের জন্য এসি বাস কিনেছেন, যাতে উনাদের বাচ্চাকাচ্চারা আসা-যাওয়া করে। উনাদের সন্তানদের চেহারায় যেন কাল দাগ না পড়ে এজন্য কালো গ্লাসওয়ালা গাড়ি আমদানি করেছেন। আর আমরা জলে ভেসে ভেসে এসেছি, আমাদের শুধু আশ্বাসের মুলা দেখাচ্ছে।

এরপর বেলা ২টা ৩০ মিনিটে উপাচার্য অবস্থান কর্মসূচি স্থলে এসে শিক্ষার্থীদের বুঝানোর চেষ্টা করেন। এসময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে ফিরোজ আহমেদ উপাচার্য বরাবর তাদের দাবি দাওয়া পেশ করেন।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো ছিলো-
১. নতুন দশটি নিজস্ব বাস দেয়া।
২. ফিটনেসবিহীন বাস/ভাঙাচোরা বাস গুলো স্থলাভিষিক্ত করে নতুন বাস দেয়া।
৩. শুক্রবার ও শনিবারে দুটো বাস সংযোজন।
৪. নতুন শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থীদের অনুপাতে বাস সংযোজন করতে হবে।

দাবির প্রেক্ষিতে উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান আশ্বস্ত করে বলেন, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব চারটা বাস এবং ভাড়া করা নয়টা বাস রয়েছে। ইতিমধ্যে একটি ভাড়া বাস আজ যুক্ত হয়েছে। ঈদের ছুটির পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব একটা বাস যুক্ত হবে।

তিনি আরও জানান, এছাড়াও পরবর্তী তিন মাসের মধ্যে নতুন দুটো নিজস্ব বাস পাওয়া যাবে। পরবর্তী এক মাসের মধ্যে আরও একটি নিজস্ব বাস দেওয়া হবে। অর্থাৎ পাঁচ মাসে পাঁচটি বাসের ব্যবস্থা করা হবে। ঈদের ছুটির মধ্যে ফিটনেসবিহীন বাস পরিবর্তন করে দেওয়া হবে।

অন্যদিকে আগামী রমজানের ছুটি পরবর্তী আগষ্ট মাসের মধ্যে পুরো পরিবহণ সমস্যা সমাধান না হলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি